শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
আশেক মাশেকের নামে শারীরিক সম্পর্কের অডিও ভিত্তিও ভাইরাল

কটিয়াদীতে পূর্ব ঘোষিত ওরস বন্ধ

কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি
  ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৪৭
আপডেট  : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৪৮

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার মসুয়া গ্রামে আব্দুছ ছমেদ ফকিরের মাজারে বাৎসরিক ওরস ছিল ৩০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার। মাজারের খাদেম মরহুম আব্দুছ ছমেদ ফকিরের ছেলে  মাইজ উদ্দিন শাহ চিশতি ওয়াইছির   আশেক মাশেকের নামে মহিলা ভক্তদের সাথে বিবাহ বহির্ভূত শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের ২ টি অডিও ও ভিডিও ভাইরাল হলে এলাকাবাসী ওরস বন্ধের মসজিদের সামনে ওয়াজ মাহফিলের ঘোষণা দেন ।

 

শুক্রবার জুমার নামাজের পর স্থানীয় লোকজন বিক্ষোভ মিছিল মাজারের ওসর বন্ধের উদ্যোগ নেয় । এ সংবাদ পেয়ে জনরোষ থেকে রেহাই পেতে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য   মাইজ উদ্দিন পীর সাহেব কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপারকে জানান এবং তিনি নিজেই ওরস বন্ধের ঘোষণা দেন । শুক্রবার দুপুরে কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. রাসেল শেখ এর নির্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( হোসেনপুর সার্কেল ) মো. আল আমিন ও কটিয়াদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম শাহাদাত হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসী ও ওরস সমর্থকদের সাথে আলোচনায় বসেন। সভায় পীর মাইজ উদ্দিন তার  ওরস বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন ।

 

ওরস বন্ধের সমর্থক মসুয়া গ্রামের মো. ফরিদ উদ্দিন জানান, কথিত পীর মাইজ উদ্দিন  একজন নারী লোভী  । তিনি তার মহিলা ভক্তদের সাথে বিবাহ বহির্ভূত আশেক মাশেকের নামে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে । এ বিষয়ে অনেক মহিলা প্রকাশ্যে বলেছেন  এবং ধর্ষিতাদের অডিও ও ভিডিও ভাইরাল হয়েছে । আমরা ভন্ড পীরের মাজার উচ্ছেদ ও মাইজ উদ্দিনের শাস্তি চাই ।

 

মাজারের খাদেম ও পীর মাইজ উদ্দিন শাহ জানান, আমার মৃত  বাবার মাজারে শুক্রবার ছিল বাৎসরিক ওরস মাহফিল ।  ওরসের তারিখ ঘনিয়ে আসলে এলাকার কিছু লোক ওরস বন্ধের জন্য মসজিদের সামনে ওয়াজ মাহফিলের ঘোষণা করেন। আমার নামে অপবাদ ছড়ানো ও জনরোষ তৈরির জন্য কিছু মহিলাকে দিয়ে আমার নামে মিথ্যা কথা রেকর্ড করে এলাকায় ছড়িয়ে দিয়েছে । আমি এ ঘটনার সাথে জড়িত নয় । আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করতেই এসব ঘটনা । এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য বাৎসরিক ওরস বাতিল করেছি ।

 

কটিয়াদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম শাহাদাত হোসেন জানান, মাইজ উদ্দিন সাহেব তার পূর্ব ঘোষিত বাৎসরিক ওরস বাতিল করেছেন । এলাকার শান্তি ফিরিয়ে আনতে তার উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।

 

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হোসেনপুর সার্কেল) মো. আল আমিন জানান, পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশে আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি । শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে মাইজ উদ্দিন পীর সাহেব তার ওরস বাতিল করেছেন । এ বিষয়ে এলাকায় কোন পক্ষ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাইলে আমরা কাউকে ছাড় দিবনা ।

 

যাযাদি/এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে