বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শিক্ষার্থীদের প্রিয় ঝালমুড়ি বিক্রেতা

স্টাফ রিপোর্টার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
  ০১ অক্টোবর ২০২২, ২০:৩২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার প্রিয় ঝালমুড়ি বিক্রেতা কুদ্দুস মিয়া-(৬৫) শিক্ষার্থীদের কাছে তিনিঝালমুড়িকুদ্দুস মামা হিসেবে পরিচিত। গত ২০ বছর ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের সামনে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন তিনি।

শিক্ষার্থীদের ভালোবাসার টানে তিনি ২০ বছর ধরে সরকারি কলেজের সামনে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন। কলেজের সামনে ঝালমুড়ি বিক্রি করেই জীবনের বাকী সময়টা পার করতে চান তিনি। কারণ শিক্ষার্থীদের ব্যবহারে তিনি মুগ্ধ।

পিরোজপুর জেলার নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠি) উপজেলার অরিবুইন্না গ্রামের মৃত রুস্তম মিয়ার ছেলে কুদ্দুস মিয়া। ২০০১ সালে জীবন-জীবিকার তাগিদে তিনি পিরোজপুর থেকে চলে আসেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার দক্ষিণ মৌড়াইলের জয়নাল মিয়ার বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করেন তিনি। স্ত্রী, চার ছেলে এক মেয়েকে নিয়ে তার সংসার। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের সামনে ঝালমুড়ি বিক্রি করেই চলে তার সংসার। মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন। এক ছেলে তাকে সাহায্য করে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের অনার্স চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ইভা আক্তার বলেন, কুদ্দুস মামার ঝালমুড়ি আমার খুব পছন্দের। আমি গত বছর ধরেই তাঁর কাছ থেকে ঝালমুড়ি কিনি। তিনি খুব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নভাবে ঝালমুড়ি বানিয়ে দেন।

পৌর এলাকার শিমরাইল কান্দি গ্রামের বাসিন্দা সাবেরা সোবহান সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রী বিথি আক্তার বলেন, আমি প্রায়ই ঝালমুড়ি কিনতে কুদ্দুস মামার কাছে আসি।

ঝালমুড়ি বিক্রেতা কুদ্দুস মিয়া বলেন, প্রতিদিন সকাল ৮টায় ঝালমুড়ির মালামাল নিয়ে কলেজের সামনে আসি, বিক্রি করি বিকেল ৪টা পর্যন্ত। সরকারি কলেজ, নিয়াজ মুহাম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঝালমুড়ি কিনে। সবাই তাকে মামা বলে ডাকেন।

তিনি বলেন, প্রথম প্রথম ঝালমুড়ি বিক্রি করতে খারাপ লাগতো, মনে হতো অন্য কোন পেশায় চলে যাই। কিন্তু শিক্ষার্থীদের ভালোবাসার কারনে অন্য পেশায় যেতে পারিনি।

কুদ্দুস মিয়া আক্ষেপ করে বলেন, ঝালমুড়ির মালামাল (চানাচুর, টমেটো, কাচা মরিচ, বুট, পেয়াজ) ইত্যাদির দাম বেড়ে যাওয়ায় এখন ঝালমুড়ি বিক্রি করে তেমন লাভ হয়না। তিনি বলেন, ঝালমুড়ি বিক্রি করে যে লাভ হয় তা দিয়ে সংসার চালাতে কষ্ট হয়।

  যাযাদি/মনিরুল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে