বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

বগুড়ায় আ‘লীগের সভায় খাবারের প্যাকেট ৮শ, কর্মী উপস্থিত ৩শ

বগুড়া প্রতিনিধি
  ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৯:০৭

বগুড়ায় আওয়ামী লীগের সভায় কর্মী উপস্থিত ৩০০ খাবারের প্যাকেট ৮০০ অর্থাৎ কর্মী সংকটের কথা বলছেন নেতারা। জনসভায় নেতারা বলেন, বাকি প্যাকেট কী করবো? নেতাকর্মী উপস্থিত হওয়ার কথা ছিল ৬০০ জনের বেশী। নেতার এমন বক্তব্যে উপস্থিত দর্শকদের মধ্যে হাস্যরসের সৃষ্টি হয়। ঘটনা বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলায়।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে সারিয়াকান্দি পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের এক সভায় এই ঘটনা ঘটে। ওই সভায় কর্মী সংকটের কথা অকপটে বললেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক দুলু।

সভায় যোগ দেওয়া নেতা-কর্মীরা বলেন, এটি উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা। কিন্তু সভার স্থানে গিয়ে দেখা গেল, ব্যানারে লেখা আছে, বিএনপি জামাতের-সন্ত্রাস নাশকতা ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ। দুপুর থেকে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়ে। চলে তা বিকেল ৪টা পর্যন্ত। উক্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাংসদ ও আওয়ামী লীগের মনোনীত এমপি প্রার্থী সাহাদার মান্নান।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম মন্টু মন্ডল সভায় সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক দুলু, জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুর রশিদ ফারাজী। রাশেদুল ইসলাম রিপনের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি এ্যাডঃ মন্তেজার রহমান মন্টু, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী, এমপি পুত্র বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ সাখাওয়াত হোসেন সজল, পৌর মেয়র মতিউর রহমান মতি প্রমুখ।

বক্তব্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক দুলু বলেন, সভায় লোক সংখ্যা এত কম কেন ? নেতাকর্মী হওয়ার কথা ছিল ৬০০ জনের বেশী। কিন্তু আমি গণনা করে দেখলাম, এখানে নেতাকর্মী হয়েছে ৩শ' জন। দুপুরের খাবারের জন্য প্যাকেটও এনেছি ৮শ' টি। তাহলে অতিরিক্ত প্যাকেট গুলি আমি এখন কি করবো।

তিনি নেতাকর্মীর কাছে প্রশ্ন করে বলেন, এরকম হলে চলবে না। আব্দুল খালেক দুলু ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য টেনে আরো বলেন, আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের একযোগে কাজ করতে হবে ঐক্যবদ্ব ভাবে। মান্নান সাহেব এমপি হয়ে অনেক কাজ করেছেন, আপনাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থেকে আওয়ামী লীগের এমপি প্রার্থী সাহাদারা মান্নানকে আবার নৌকা মার্কায় বিজয়ী করতে হবে।

এই সমাবেশে উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১২ টি ইউনিয়নের নেতাকর্মী উপস্থিত থাকার কথা ছিল। সে হিসেবে কর্মীদের বাদ দিয়ে শুধু নেতাদের হিসেব করলেও প্রায় ৫ শতাধীক হয় কিন্তু এই সমাবেশে কর্মী ও নেতাসহ মাত্র ৩শতাধিক ব্যাক্তি উপস্থিত ছিলেণ।

যাযাদি/ এম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে