বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

অপহরণকারি দূর্বৃত্তদের শেকড় কেটে দেয়া হবে: টেকনাফে পুলিশ সুপার 

টেকনাফ প্রতিনিধি
  ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ২১:৪৪

অপহরণকারি দূর্বৃত্তদের শেকড় কেটে দেয়া হবে। কোনভাবেই আর একটি মানুষও অপহরণ দেখতে চাই না পুলিশ। পাশাপাশি স্থানীয়রা রোহিঙ্গাদের বাড়ি ভাড়া দিলে বাড়িওয়ালাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন কক্সবাজারের জেলা পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম।

বুধবার সকালে টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) অপারেশন আব্দুর রাজ্জাকের সঞ্চালনায় ও হাফেজ মোহাম্মদ হোসেন এর কুরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শামীম হোসেন। উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম এর উদ্যোগে আয়োজিত রঙ্গীখালী দারুল উলুম কামিল মাদ্রাসা মাঠে অপরাধ প্রতিরোধ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন পুলিশ সুপার।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা স্থানীয়দের আশ্রয়ে ভাড়া বাসায় থেকে সকলের সাথে মিশে অপহরণ মাদক চোরাচালান করছে, তাদেরকে ভাড়া দেওয়া বন্ধ করুন। যদি কেউ রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাড়ি ভাড়া দেয় তাহলে বাড়িওয়ালাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন পুলিশ তিনি।

মাহফুজুল ইসলাম আরো বলেন, স্থানীয় এবং রোহিঙ্গারা মিলে অপহরণ করছে। এই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পর্যটক শহরে কোনো মাদক, সন্ত্রাসবাদ ও দূর্বৃত্তদের ছাড় দেওয়া হবে না। তাদের যেকোনো মূল্যে গ্রেপ্তার করা হোক তাই অপরাধ দমনে স্থানীয়দেরও সহযোগিতা কামনা করেছেন তিনি।

এসময় জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজ ও স্থানীয়রা বিভিন্ন মতামত উপস্থাপন করে বলেন, আইনশৃংখলা বাহিনীর সাঁড়াশি অভিযান ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় অপহরণের অভয়ারণ্য থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম, টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মুহাম্মদ ওসমান গনী, টেকনাফ কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সভাপতি বাহাদুর সহ উখিয়া -টেকনাফের জনপ্রতিনিধিরা।

অপরাধে জড়িত দূর্বৃত্তদের সম্পর্কে এসপি আরও বলেন, যত বড় শক্তিশালী বা ক্ষমতাধর হন না কেন আইনের হাত তার চেয়ে অনেক বড়। কোন ভাবেই পার পাওয়ার সুযোগ নেই। আপনি যেভাবে রঙ পরিবর্তন করবেন আপনার সমাজের মানুষই আমাকে জানিয়ে দেব। তাদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী, হোয়াইক্যং ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ আনোয়ারী, হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী, সদরের সদরের চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান, বাহারছড়া চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন খোকন, প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

যাযাদি/ এম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে