বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাচনে: ভাতিজা বউ-ফুফু শাশুড়ির ভোটের লড়াই

ধর্মপাশা- মধ্যনগর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
  ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ২১:১১
আপডেট  : ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৯
ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাচনে: ভাতিজা বউ-ফুফু শাশুড়ির ভোটের লড়াই

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনী মাঠে ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন ভাতিজা বউ- আপন ফুফু শাশুড়ি। ভাতিজা বউ- ফুফু শাশুড়ির এমন প্রতিদ্বন্দ্বিতা ভোটারদের নজর কেড়েছে।

তবে আপন ভাতিজা বৌ রেশমার চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন আপন ফুফু শাশুড়ি ইয়াছমিন আক্তার।

মনোনয়ন দাখিলের পর থেকেই একে অপরের প্রতি প্রতিদ্বন্দ্বিতার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন ইয়াছমিন ও রেশমা। ইয়াছমিন পাইকুরাটি ইউনিয়নের বৌলাম গ্রামের মৃত মনোয়ার আলীর মেয়ে এবং রেশমা মৃত মনোয়ার আলীর ২য়পুত্র মৃত এরশাদুল হক ওরফে আঙ্গুর মিয়ার ছেলে ও সাবেক ইউপি সদস্য আল আমিনের স্ত্রী।

জানা গেছে, ইয়াছমিন আক্তার নবগঠিত মধ্যনগর উপজেলার বংশিকুন্ডা উত্তর ইউনিয়নের কালাগড় গ্রামের প্রবাসী আব্দুল রাজ্জাকের স্ত্রী।

এই প্রথম ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আপন ভাতিজা বৌ রেশমার সাথে ফুফু শাশুড়ি ইয়াছমিন আক্তারে এবারের উপজেলা নির্বাচনে ভোটের মাঠে লড়তে যাচ্ছেন। কিন্তু ভাতিজা বৌ ও ফুফু শাশুড়ি পারিবারিকভাবে দা-কুড়াল সম্পর্ক।

রেশমার স্বামী আল-আমিন বলেন, আমার ফুফু আমার স্ত্রীর বিরুদ্ধে নির্বাচন করার জন্য উনার স্বামীর বাড়ি মধ্যনগর উপজেলার কালাগড় থেকে ভোটার স্থানান্তর করে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন।

ইয়াছমিন আক্তার বলেন, আমার ভাতিজা আমার মাকে মারধর করার কারণে মামলা মোকদ্দমা হয়েছিল তার বিরুদ্ধে। সেই জেদে আমার বিরুদ্ধে তার বৌকে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে।

উল্লেখ্য ওই দুজন ছাড়াও এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে অনামিকা আক্তার, পিয়ারা আক্তার, মর্জিনা আক্তার মনোনয়ন দাখিল করেছেন।

২য় ধাপের আগামী ২১ মে ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

যাযাদি/ এম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে