logo
রবিবার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

তেলেঙ্গানা গণধর্ষণ

অভিযুক্তদের মরদেহ সংরক্ষণ করে ভিডিও জমার নির্দেশ

অভিযুক্তদের মরদেহ সংরক্ষণ করে ভিডিও জমার নির্দেশ
ভারতের তেলেঙ্গানায় গণধর্ষণে অভিযুক্ত চারজনের মরদেহ সোমবার রাত ৮টা পর্যন্ত সংরক্ষণ করার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্যের হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ২৭ বছর বয়সী পশু চিকিৎসককে ধর্ষণ ও হত্যায় ওই অভিযুক্ত ব্যক্তিদের মরদেহের ময়নাতদন্তের ভিডিও রেকর্ড করে শনিবার সন্ধ্যার মধ্যে ওই রেকর্ডিং রেজিস্ট্রারের কাছে জমা দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সংবাদসূত্র : এবিপি নিউজ, ইনডিয়া টুডে

গত শুক্রবার ভোরে পুলিশের গুলিতে নিহত হয় তেলেঙ্গানা ধর্ষণে অভিযুক্ত চারজন। হায়দারাবাদে গণধর্ষণের পর তরুণী পশু-চিকিৎসককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ওই চার ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

পুলিশ হেফাজত থেকে পালাতে গেলে 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত হয় তারা। পুলিশের ভাষ্য, তদন্তের জন্য ওই ব্যক্তিদের ঘটনাস্থলে নিয়ে গিয়েছিল পুলিশ। সেখান থেকেই পালানোর চেষ্টা করে তারা। তারপরই পুলিশ গুলি চালায়।

হায়দরাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, চার অভিযুক্ত মুহাম্মদ আরিফ, জলস্নু শিব, জলস্নু নবীন এবং চিন্তাকুন্টা চেন্নাকেশাভুলুকে ধর্ষণের ঘটনা তদন্তের জন্য ভোর ৩টার সময় ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়। হায়দরাবাদ থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দূরে একটি সেতুর নিচে ওই নারীর মৃতদেহ পাওয়ায় অভিযুক্তদের সেখানেই নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশের দাবি, অভিযুক্তদের মধ্যে একজন অন্যদের পালিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দেয়। দু'জন তাদের আক্রমণ করে অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে গুলি চালানোর পর পুলিশ আত্মরক্ষার জন্য অভিযুক্তদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়।

এ ঘটনার পর শনিবার তেলেঙ্গানা হাইকোর্টের দুই বিচারকের বেঞ্চ অভিযুক্তদের ময়নাতদন্তের ভিডিও রেকর্ডিং করার নির্দেশ দেয়। শনিবার সন্ধ্যার মধ্যে এসব রেকর্ড জমা দেয়ার কথা বলা হয়। মেহবুব নগরের প্রধান জেলা বিচারক শনিবার সন্ধ্যায় তেলেঙ্গানা হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে ভিডিও হস্তান্তর করার নির্দেশ দেয়া হয়।

গত বুধবার রাতে কর্মস্থল থেকে ফেরার পথে তেলেঙ্গানার ওই তরুণী চিকিৎসককে চার ট্রাকচালক ও ক্লিনার কৌশলে নিজেদের ফাঁদে ফেলে গণধর্ষণ করে। পরদিন সকালে ওই তরুণীর আগুনে পুড়ে যাওয়া মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। শাদনগর নামক এলাকা দিয়ে স্কুটিতে করে যাচ্ছিলেন ওই তরুণী চিকিসৎক। মাঝ রাস্তায় স্কুটির টায়ার ফেটে গেলে তিনি অভিযুক্ত ওই দুই ট্রাকচালকের কাছে সাহায্য চেয়েছিলেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে