logo
বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০, ২৫ চৈত্র ১৪২৫

  অনলাইন ডেস্ক    ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

ধামরাইয়ে ফসলি জমির 'টপ সয়েল' যাচ্ছে ইটভাটায়

ধামরাই (ঢাকা) সংবাদদাতা

ঢাকার ধামরাইয়ের দেড় শতাধিক স্পট থেকে ফসলি জমির টপ সয়েল (জমির উপরিভাগের উর্বরা মাটি) যাচ্ছে ইটভাটায়। এতে উর্বরতা হারিয়ে অনাবাদী হয়ে পড়ছে আবাদী জমি। কমতে শুরু করেছে ফসলের উৎপাদন। স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় ইটভাটার মালিকরা কৃষকদের প্রলোভন দেখিয়ে দেদারছে ভেকু মেশিন দিয়ে এসব টপ সয়েল কেটে নিচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাসহ স্থানীয় প্রশাসন বলছে তাদের কিছুই করার নেই।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলার মহিশাষী, বালিথা-বাথুলি, বেলিশ্বর, মাদারপুর, বাস্তা, কাওয়াখোলা, কুলস্না, বড়নারায়ণপুর, বাসনা, ধাইরা, ভালুম জয়পুরা, ধলকুন্ড, জালসা, কুশুরা, নান্নার, সুয়াপুরসহ দেড় শতাধিক স্থানে ভেকু মেশিনের মাধ্যমে ট্রাক দিয়ে ফসলি জমির টপ সয়েল বিভিন্ন ইটভাটায় নিয়ে যাচ্ছে। আর জমির মালিকরা না বুঝেই তা ইটভাটার মালিকদের কাছে বিক্রি করছেন। এতে জমির উর্বরা শক্তি কমতে শুরু করলেও এ কথা স্থানীয় কৃষি অফিস থেকে কৃষকদের জানানো হচ্ছে না। কিন্তু কৃষিবিদরা বলেছেন, টপ সয়েল বিক্রির ফলে জমির উর্বরাশক্তি ফিরে পেতে প্রায় ১০-১২ বছর সময় লেগে যাবে এবং কৃষি জমি অনাবাদী হয়ে দেশে খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আরিফ হোসেন জানান, সরকারি নিয়ম মেনে কেউ ইটভাটা তৈরি করতে পারবে না। তাই অনিয়মের মধ্যেই ধামরাইয়ে অনেক ইটভাটা তৈরি হয়েছে। আর এসব ভাটার জন্য মাটির প্রয়োজন। তাই উপজেলার বিভিন্ন এলাকার কৃষকদের জমির টপসয়েল তারা নিচ্ছে। তারা এসব বন্ধে সাধ্যমত চেষ্টা করছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে