রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

বুবলি ঝলকে চাঙ্গা ঢালিউড

জাহাঙ্গীর বিপ্লব
  ০৬ মে ২০২৩, ১০:৩২
বুবলি ঝলকে চাঙ্গা ঢালিউড

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত অভিনেত্রী শবনম ইয়াসমিন বুবলী। ২০১৬ সালে ‘বসগিরি’ সিনেমার মাধ্যমে সংবাদ পাঠিকা থেকে চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে তার। অল্প সময়ের মধ্যে বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় উঠে আসেন এই অভিনেত্রী। ২০১৬ থেকে ২০২৩- মাত্র ৭ বছরের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার তার।

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন চিত্রনায়িকা বিশেষ করে ২০২১ সাল পর্যন্ত সাফল্যের শীর্ষে ছিল বুবলী অভিনীত ১০টি সিনেমা। বলা চলে, যেখানেই তিনি হাত বাড়িয়েছেন সেখান থেকেই সাফল্য ছিনিয়ে এনেছেন। এর পেছনে যদিও ঢালিউডের শীর্ষ চাহিদাসম্পন্ন তারকা শাকিব খানেরও অবদান রয়েছে। কারণ বুবলী অভিনীত সবগুলো সিনেমার নায়ক ছিলেন শাকিব খান। শাকিব খানের সঙ্গে অন্য কোনো নায়কের বিপরীতে কোনো ছবিতেই কাজ করতে দেখা যায়নি তাকে। যে কারণে সবাই ধরে নিয়েছিলেন, বুবলীর সিনেমা মানেই শাকিব খান।

এমনকি এই দুই তারকাকে নিয়ে প্রেমের গুঞ্জনও জোরদার হয় সিনে পাড়ায়। শুধু তাই নয়, গোপনে বিয়ে করেছেন শাকিব-বুবলী এমন খবরও চাউর হয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে। এরমধ্যেই ২০২০ সালে হঠাৎ করেই ‘উধাও’ হয়ে যান শবনম বুবলী। তার এই উধাও হওয়ার বেশ কিছুদিন পর নতুন লুকে প্রিয় প্রাঙ্গণ চলচ্চিত্রে ফিরে এসে শাকিব ছাড়াও অন্য নায়কদের বিপরীতে কাজ করতে থাকেন। এরপর শাকিবের সঙ্গে বিয়ের খবর ফাঁস করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের সন্তান বীরের ছবি প্রকাশের ঘটনা কারো অজানা নয়। এ নিয়ে জলঘোলাও কম হয়নি।

তবে ব্যক্তিগত এসব ঝক্কি-ঝামেলাকে দূরে রেখে আবারও পুরোদমে চলচ্চিত্রে কাজ করে ছন্দে ফিরেছেন বুবলী। চলচ্চিত্রের বাইরেও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছাদূত হিসেবেও কাজ করছেন এই নায়িকা। পাশাপাশি ওটিটি প্ল্যাটফর্মেও কাজ করছেন তিনি। এবারের রোজার ঈদে বুবলীর দুটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। একটি তপু খান পরিচালিত ‘লিডার : আমিই বাংলাদেশ’ ও অন্যটি সাইফ চন্দন পরিচালিত ‘লোকাল’। দুটি সিনেমাতে বুবলীর অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছেন দর্শক। ঈদের পর থেকে এখনো সিনেমা দুটি ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে বিভিন্ন হলে চলছে। বলা যায় দুটি সিনেমারই দর্শক বেড়েই চলেছে। সিনেমা হলগুলোতে দর্শকের উপচেপড়া ভিড় বুবলীর ‘লিডার : আমিই বাংলাদেশ’ ও ‘লোকাল’ দেখার জন্য।

সিনেমাতে একের পর এক সাফল্য এবং দর্শকের ভালোবাসা প্রসঙ্গে বুবলী বলেন, ‘সত্যি বলতে কী এটা আমার পরম সৌভাগ্য যে শুরু থেকেই আমি দর্শকের ভালোবাসা পেয়ে আসছি। দর্শক আমার সিনেমার অভিষেকের শুরুতে যেভাবে গ্রহণ করেছে পরবর্তীতে একের পর এক সিনেমা মুক্তির সময়েও দর্শক আমার পাশে ছিলেন, তারা আমার অভিনীত সিনেমা দেখতে হলমুখী হয়েছেন। একজন নায়িকা হিসেবে এই যে দর্শকের এত ভালোবাসা তার ভীষণ মূল্যায়ন করি আমি। কারণ দর্শকের কারণেই আমি আজকের বুবলী। আর যে মানুষটির প্রতি আমি সবসময়ই কৃতজ্ঞ তিনি হচ্ছেন আমাদের সবার প্রিয় শাকিব খান। তার কারণে সিনেমায় আমার আসা। তার সহযোগিতায় আমি এতদূর আসতে পেরেছি। আমার নিজের অনেক চেষ্টা ছিল, সবার সহযোগিতা ছিল। যে কারণে আজকের এই অবস্থানে আমি। আগামীদিনে আরও অনেক ভালো ভালো গল্পের সিনেমাতে কাজ করতে চাই। আশা করছি সবাই পাশে থাকবেন।’

২০১৬ সালের কোরবানি ঈদে মুক্তি পায় বুবলী অভিনীত সিনেমা ‘বসগিরি’ ও ‘শুটার’। এরপর একে একে মুক্তি পায় ‘বীর’, ‘ক্যাপ্টেন খান’, ‘বিদ্রোহী’, ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’, ‘রংবাজ’, ‘সুপার হিরো’, ‘তালাশ’, ‘চোখ’ ইত্যাদি। প্রতিটি সিনেমাতেই বুবলী তার অভিনয় দিয়ে দর্শককে মুগ্ধ করেছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করা শবনম বুবলীর জন্ম ও বেড়ে ওঠা সংস্কৃতিমনা পরিবারে। তার দুই বোনের একজন কণ্ঠশিল্পী নাজনীন মিমি। অন্যজন শারমিন সুইটি কাজ করছেন একটি বেসরকারি চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকা হিসেবে। শবনম বুবলীও শুরুতে বাংলাভিশনে সংবাদ পাঠক ছিলেন। তবে এখন তার ধ্যান-জ্ঞান কেবল অভিনয়। বর্তমানে তার হাতে রয়েছে বেশ কয়েকটি সিনেমা।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে