আমতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ কমিটি স্থগিত

উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নোটিশ
আমতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ কমিটি স্থগিত

গঠনতন্ত্র ও সাংগঠনিক প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে টাকার বিনিময়ে আমতলী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা ও সাধারণ সম্পাদকের টাকা লেনদেনের অডিও ফাঁসসহ নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মাহবুবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। রোববার রাতে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিক ও সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসাইন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ছয়টি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ কমিটি স্থগিত করে কেন তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তা নোটিশ প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়েছে।

জানা গেছে, গত শুক্রবার রাতে আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী, কুকুয়া, আঠারোগাছিয়া, হলদিয়া, আমতলী সদর ও আড়পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ আংশিক কমিটি ঘোষণা করেন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. মাহবুবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজ।

এ কমিটি ঘোষণার পরেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ আমতলীতে হইচই পড়ে যায়। উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে কমিটি ঘোষণা, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজের টাকা লেনদেনের অডিও ফাঁসসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিক ও সাধারণ সম্পাদক মো. তানভীর হোসাইনকে এ কমিটি গঠনে অনিয়ম ও অবৈধ লেনদেনের অভিযোগ করেন পদবঞ্চিত ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতারা এবং তারা এ অবৈধ কমিটি নিয়ে আন্দোলনের হুমকি দেন। এ অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে রোববার রাতে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষিত ইউনিয়ন কমিটি স্থগিত করে নোটিশ প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. মাহবুবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজের বিরুদ্ধে কেন সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তার জবাব চাওয়া হয়েছে।

হলদিয়া ইউনিয়নের নিয়াজ মোর্শেদ তনয় জানান, রায়হান নামের আমার এক আত্মীয়কে ছাত্রলীগ কমিটিতে পদ দেওয়ার জন্য আমার কাছে ২০ হাজার টাকা দাবি করেন। ওই টকা না দেওয়ায় তাকে পদ না দিয়ে টাকার বিনিময়ে নাইম উদ্দিন মোল্লা নামের একজনকে সাধারণ সম্পাদকের পদ দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সবুজ আমার কাছে টাকা চাওয়ার অডিও ফাঁস হওয়ায় আমাকে জীবননাশের হুমকি দিচ্ছে।

আঠারোগাছিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান হাসিব বলেন, কমিটি ঘোষণার আগে উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সবুজ আমাকে দেখা করতে বলেছিল। কিন্তু আমি দেখা না করায় বিবাহিত এক অছাত্রকে টাকার বিনিময়ে কমিটির সভাপতি পদ দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, কুকুয়া ইউনিয়নের ছাত্রদলের এক নেতাকে বর্তমানে ছাত্রলীগ সভাপতি করেছেন ।

আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজ কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে বলেন, করোনার কারণে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সম্মেলন করতে পারিনি। তিনি আরও বলেন, দ্রুত নোটিশের জবাব দেওয়া হবে।

বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. জুবায়ের আদনান অনিক আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ইউনিয়ন কমিটি গঠনে অবৈধ লেনদেনের মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি এবং গঠনতন্ত্র ও সাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় কমিটি গঠন না হওয়ায় ইউনিয়ন কমিটি স্থগিত করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নোটিশের জবাবপ্রাপ্তি সাপেক্ষে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে