• সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

'বালাই ষাট' পেরিয়ে সুবর্ণা মুস্তাফা

'বালাই ষাট' পেরিয়ে সুবর্ণা মুস্তাফা
সুবর্ণা মুস্তাফা

দেশীয় শোবিজে আলোকিত একটি নাম সুবর্ণা মুস্তাফা। একাধারে তিনি একজন অভিনেত্রী, প্রযোজক ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সদস্য। তিনি প্রখ্যাত অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার কন্যা এবং ক্যামেলিয়া মুস্তাফার বোন। সুবর্ণা মুস্তাফা বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গনের এমনই একজন অভিনেত্রী; যিনি তার পরের কয়েক প্রজন্মের অভিনয় শিল্পীদের কাছে ভীষণ প্রিয় একজন অভিনেত্রী। তার পরের প্রজন্মের অভিনেতা কিংবা অভিনেত্রীদের কাছে যদি প্রশ্ন করা হয়, তাহলে বলা যায় প্রায় শতভাগই বলবেন, তাদের প্রিয় অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। একজন অভিনেত্রী হিসেবে সুবর্ণা মুস্তাফা এতটাই ভার্সেটাইল নন্দিত একজন অভিনেত্রী যে, স্বাভাবিকভাবেই তিনি দর্শকের কাছে তো প্রিয় বটেই সহশিল্পীদের কাছেও তিনি ভীষণ প্রিয় একজন অভিনেত্রী। একুশে পদকপ্রাপ্ত ও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত বরেণ্য এই অভিনেত্রী ও সংসদ সদস্যর আজ জন্মদিন। 'বালাই ষাট' পেরিয়ে একষট্টিতে পা দিলেন এ অভিনেত্রী। ১৯৫৯ সালের এই দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। বিগত বেশ কয়েক বছর তিনি তার খুব কাছের কিছু প্রিয় মানুষ, সহশিল্পী, পরিচালকদের নিয়ে দিনটি বিশেষভাবে উদযাপন করলেও এবার করোনার কারণে বিশেষ কোনো পরিকল্পনা নেই তার। সুবর্ণা মুস্তাফা বলেন, 'সত্যি বলতে কী, একটা অদ্ভুত সময়ের মধ্য দিয়ে আমরা যাচ্ছি। প্রতিদিন দেশে, দেশের বাইরে অনেক মানুষ মারা যাচ্ছেন। এমন অবস্থায় কীভাবে মানসিকভাবে আসলে ভালো থাকি? ভালো থাকা যায় না। যেখানে মানসিকভাবেই আমি ভালো নেই সেখানে নিজের জন্মদিন নিয়ে আলাদাভাবে ভাবার কোনো সুযোগও নেই। তাই এবারের জন্মদিনকে ঘিরে বিশেষ কিছুই করা হচ্ছে না। এরই মধ্যে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। সবাই যার যার অবস্থানে নিরাপদে থাকুন, সতর্ক থাকুন, সাবধানে থাকুন। কারণ নিজের নিরাপত্তাটাই এখন অনেক বেশি জরুরি।'

সুবর্ণা মুস্তাফা জানান, এরই মধ্যে বেশকিছু নাটকে এবং সিনেমাতেও কাজ করার প্রস্তাব এসেছে তার কাছে। কিন্তু তিনি করোনার কারণে সেসব কাজ করেননি। শুধুমাত্র জাতীয় সংসদের স্পেশাল সেশনেই তিনি অংশ নিয়েছেন। বাংলাদেশ টেলিভিশনে সুবর্ণা মুস্তাফা সর্বশেষ বদরুল আনাম সৌদ'র নির্দেশনায় 'লুকোচুরি লুকোচুরি গল্প' ধারাবাহিকে অভিনয় করেন। এরপর তিনি আর কোনো নতুন ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করেননি। আশির দশকে তিনি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। বিশেষ করে আফজাল হোসেন এবং হুমায়ুন ফরীদির সাথে তার জুটি ব্যাপক দর্শক সমাদর লাভ করে। এছাড়া তিনি হুমায়ুন আহমেদের লেখা 'কোথাও কেউ নেই' ও 'আজ রবিবার' টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন। টেলিভিশন নাটকের পাশাপাশি তিনি ২২ বছর মঞ্চে অভিনয় করেন।

১৯৮০ সালে সৈয়দ সালাহউদ্দিন জাকী পরিচালিত 'ঘুড্ডি' সিনেমাতে অভিনয় করেই সিনেমাপ্রেমী দর্শককে মুগ্ধ করেছিলেন সুবর্ণা মুস্তাফা। এই সিনেমাতে তার সহশিল্পী ছিলেন রাইসুল ইসলাম আসাদ। এই সিনেমার জনপ্রিয় গানটি হলো 'আবার এলো যে সন্ধ্যা, শুধু দু'জনে'। পরবর্তীতে সুবর্ণা মুস্তাফা 'লাল সবুজের পালা', 'নতুন বউ', 'নয়নের আলো', 'সুরুজ মিঞা', 'রাক্ষস', 'কমান্ডার', 'অপহরণ', 'স্ত্রী', 'দূরত্ব', 'গহীন বালুচর', 'গন্ডি' সিনেমাসহ আরও বেশকিছু সিনেমায় অভিনয় করেন। টিভি নাটকে সুবর্ণা মুস্তাফা-আফজাল হোসেন সর্বকালের সেরা জুটি। এই জুটি সর্বশেষ অভিনয় করেন বদরুল আনাম সৌদের নির্দেশনায় 'অক্ষর থেকে উঠে আসা মানুষ'।

সুবর্ণা মুস্তাফা ঢাকায় জন্মগ্রহণ করলেও তার তার পৈত্রিক নিবাস ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়নে। তার পিতা গোলাম মুস্তাফা ছিলেন একজন প্রখ্যাত অভিনেতা ও আবৃত্তিকার। তার মা হোসনে আরা পাকিস্তান রেডিওতে প্রযোজনার দায়িত্বে ছিলেন। মায়ের সহায়তায় মাত্র ৫/৬ বছর বয়সে বেতারের নাটকে কাজ করেন। নবম শ্রেণিতে পড়াকালীন তিনি প্রথম টেলিভিশন নাটকে অভিনয় করেন। ১৯৭১ সালের পূর্ব পর্যন্ত তিনি শিশুশিল্পী হিসেবে নির্মিত টেলিভিশনে কাজ করেছেন। ১৯৭০-এর দশকে সুবর্ণা ঢাকা থিয়টারে নাট্যকার সেলিম আল দীনের নাটক 'জন্ডিস' ও 'বিবিধ বেলুন'-এ অভিনয় করেন। ১৯৮০ সালে সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী পরিচালিত ঘুড্ডি ছবির মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র জগতে আসেন। দীর্ঘদিন সাংস্কৃতিক অঙ্গনে দৃপ্ত পদচারণার পর সুবর্ণা মুস্তাফা নাম লেখান রাজনীতির খাতায়। ২০১৯ সালের ফেব্রম্নয়ারিতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী ও ক্ষমতাসীন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সংরক্ষিত মহিলা আসন-৪ (৩০৪), ঢাকা-২২ থেকে সুবর্ণা মুস্তাফাকে মনোনয়ন ও চূড়ান্তভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ব্যক্তিগত জীবনে প্রয়াত অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। দীর্ঘ ২২ বছর সংসার করার পর ২০০৮ সালে ফরীদির সাথে তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। পরবর্তীতে তিনি বদরুল আনাম সৌদকে বিয়ে করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে