চলচ্চিত্রে আরও এক নতুন জুটি

চলচ্চিত্রে আরও এক নতুন জুটি
অনামিকা ও শেখ সাদী

মুখে অনেকেই জুটি প্রথার বিরোধিতা করলেও ঢাকাই চলচ্চিত্রের শুরু থেকেই জুটিপ্রথা বেশ গ্রহণযোগ্যতা পেয়ে আসছে। যুগে যুগে বিভিন্ন তারকা জুটি বেঁধে অসংখ্য হিট ছবি উপহার দিয়েছেন। ষাট, সত্তর কিংবা আশির দশকের কথা না হয় বাদই দেওয়া যাক। নব্বই দশকের শুরুতে ঢাকাই সিনেমায় নতুন জুটি হিসেবে এ দেশের সিনেমাপ্রেমী দর্শকের বিশেষ করে তরুণ-তরণীদের মনে ঝড় তুলেছিল নাঈম-শাবনাজ জুটি। এহতেশাম পরিচালিত তাদের প্রথম সিনেমা 'চাঁদনী'র সুবাদে যাত্রা শুরুর পর একের পর হিট সিনেমা উপহার দেন নাঈম-শাবনাজ। তাদের অনুসরণ করেই পরে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত 'কেয়ামত থেকে কেয়ামত' সিনেমায় সালমান শাহ-মৌসুমী' জুটির অভিষেক ঘটে। নাঈম-শাবনাজ ও সালমান-মৌসুমীর পর আর নতুন কোনো জুটির সেরকম উত্থান ঘটেনি। তারপরও অনেকেই নতুন নায়ক নায়িকাকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণ করেছেন। যেমন পরে 'বাপ্পী-মাহিয়া মাহী' জুটিরও নতুন হিসেবে অভিষেক হয় শাহীন সুমন পরিচালিত 'ভালোবাসার রঙ' সিনেমার মধ্য দিয়ে। সেই ধারাবাহিকতায় এবার আবু তাওহীদ কিরণের রচনায় ও পরিচালনায় 'সংশয়ী' সিনেমার মধ্য দিয়ে ঢাকাই সিনেমায় নতুন আরও এক সম্ভাবনাময় জুটির অভিষেক হতে যাচ্ছে। তারা হলেন শেখ সাদী ও অনামিকা। এর আগে মাবরুর রশীদ বান্নার নির্দেশনায় ওয়েব সিরিজে 'সি ফর কোচিং'-এ শুধু অভিনয় করেছিলেন অনামিকা। তবে সিনেমায় এবারই প্রথম। অন্যদিকে শেখ সাদী বাংলাদেশের তরুণ-তরুণীদের প্রিয় একজন কণ্ঠশিল্পী। এর আগেও অনেক নাটকে এবং সিনেমাতে কাজ করার প্রস্তাব পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু কিরণের সিনেমার গল্প এবং তার চরিত্র শেখ সাদীর ভালোলাগায় সিনেমাতে কাজ করতে যাচ্ছেন। আগামী ১৮ জুন থেকে টানা ১০-১২ দিন এই সিনেমার শুটিংয়ে অংশ নেবেন সাদী-অনামিকা। 'সংশয়ী' সিনেমাটি একটি টিনএজ লাভ স্টোরি। এতে সাদী অভিনয় করবেন অনি চরিত্রে এবং অনামিকা অভিনয় করবেন দিবা চরিত্রে। প্রথমবার সিনেমাতে অভিনয় প্রসঙ্গে শেখ সাদী বলেন, 'এর আগে আমি নিজের মিউজিক ভিডিওগুলোতেই যতটুকু অভিনয় করার, করেছি। সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য নাম লেখানোর সঙ্গে সঙ্গে নিজের কাঁধেই অনেক দায়িত্ব চলে এসেছে। ভালোভাবে অভিনয়টা করতে হবে, সেই চাপটা ভীষণ রকম অনুভব করছি। আমি আমার চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার জন্য শতভাগ চেষ্টা করব।'

অনামিকা বলেন, 'আমার সিনেমার পরিচালক কিরণ ভাই-ই মূলত আমাকে খোঁজে বের করেন। তিনি একদিন হঠাৎ আমাকে ফোন করে সংশয়ী সিনেমায় কাজ করার প্রস্তাব দেন। আমি তার কাছে গল্পটা শুনি। আমার চরিত্র সম্পর্কেই জানার চেষ্টা করি। সিনেমার নায়ক সম্পর্কেও জানলাম। সবকিছু মিলিয়েই আমার কাছে মনে হয়েছে যে, এই সিনেমায় কাজ করা যেতে পারে। তাই কাজ করার জন্য সম্মতি জ্ঞাপন করি। যদিও কিছুটা নার্ভাস, তারপরও এখন অভিনয়ের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করছি। আশা করছি ভালো হবে ইনশালস্নাহ।' অনামিকা বরিশাল মেট্রোপলিটন কলেজে উচ্চ মাধ্যমিকে পড়াশোনা করছেন। সিনেমায় অভিনয়ের জন্যই তাকে ঢাকায় থাকতে হচ্ছে। এদিকে শেখ সাদী প্রথমবারের মতো কর্ণিয়ার সঙ্গে একটি গান গেয়েছেন। গানের শিরোনাম 'ইচ্ছে হলে'। গানটির জন্য বেশ সাড়া পাচ্ছেন সাদী ও কর্ণিয়া।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে