বিশ্বকাপ বাছাই

প্রস্তুতি নিচ্ছে নারী ক্রিকেট দল

প্রস্তুতি নিচ্ছে নারী ক্রিকেট দল
বিশ্বকাপ বাছাই পর্বকে সামনে রেখে মিরপুর বিসিবি একাডেমি মাঠে চলছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের অনুশীলন -ওয়েবসাইট

গত বছর ফেব্রম্নয়ারি-মার্চে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ছোট সংস্করণের ক্রিকেটের বিশ্বকাপ। করোনায় স্থগিত হয়ে যাওয়ায় আগের ৫ মাস টি২০ নিয়ে ব্যস্ত ছিল বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটাররা। ভাইরাসে একটা বছর হারিয়ে যাওয়ায় দীর্ঘ হচ্ছে মেয়েদের ওয়ানডে ক্রিকেটে ফেরা। টি২০ বিশ্বকাপের চারটি আসর খেলে ফেললেও ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলার স্বাদ এখনো পায়নি বাংলাদেশ। আগামী জুন-জুলাইয়ে শ্রীলংকায় মেয়েদের ২০২২ ওয়ানডে বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব। ওই আসরকে সামনে রেখেই ২০ ওভারের ক্রিকেট ভুলে ওয়ানডে মেজাজের সঙ্গে মানিয়ে নিতে মিরপুরে চলছে পুরোদমে প্রস্তুতি।

বাংলাদেশের মেয়েরা সবশেষ ওয়ানডে খেলেছে ২০১৯ সালের ৪ নভেম্বর, পাকিস্তান সফরে। শেষ ম্যাচে পাওয়া জয় রুমানা আহমেদের দলকে নিয়ে গেছে আইসিসি ওয়ানডের্ যাংকিংয়ের আট নম্বরে। তবুও খেলতে হবে বাছাইপর্ব।

বাছাইপর্ব উতরে মূলপর্বে খেলার স্বপ্ন দেখছেন টাইগ্রেসপেসার জাহানারা আলম। দল হিসেবে টি২০ না ওয়ানডে, কোনটিতে বেশি ভালো মেয়েরা, গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, 'টি২০ আমরা লম্বাসময় ধরে খেলেছি। চারটা বিশ্বকাপ খেলেছি। সেদিক থেকে টেকনিক্যালি আমরা টি২০তে এগিয়ে চার বিশ্বকাপ খেলায়। ওডিআই এখনো আমরা একটাও বিশ্বকাপ খেলতে পারিনি। এদিকে পিছিয়ে থাকলেও আমার মনে হয় ওয়ানডে দল হিসেবে আমরা একটু এগিয়ে।'

'কারণ বেশির ভাগ সময়ই দেখা যায় পাকিস্তান বলেন, শ্রীলংকা বা সাউথ আফ্রিকা বলেন, আমরা অনেক আগে থেকেই ওয়ানডে বেশি জিতে এসেছি এসব দলের বিপক্ষে। আর টি২০ বিশ্বকাপের আগে পাকিস্তানের সঙ্গে একটি ওয়ানডে জিতেই কিন্তুর্ যাংকিংয়ে এগিয়েছি।'

'আত্মবিশ্বাস আছে, আর টিমটা তো (টি২০) আমরাই। জানি না কতটুকু পরিবর্তন হবে। এই টিমটাই তো ওডিআই খেলবে। আমাদের মধ্যে সক্ষমতা আছে ভালো করার। আশা করি আমরা ভালো করব।'

স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে জাহানারা-সালমা-রুমানারা পাচ্ছেন প্রস্তুতির মঞ্চ। সিলেটে এক মাসের ক্যাম্প শেষে এখন মিরপুরে চলছে দুই সপ্তাহের ক্যাম্প। ১ মার্চ শেষ হবে ৩২ ক্রিকেটারের অনুশীলন পর্ব। ৬ মার্চ থেকে বাংলাদেশ গেমসে অংশ নেবে মেয়েদের তিনটি দল। সিলেটে প্রতিটি দল পাবে দুটি করে ম্যাচ। ওয়ানডে বাছাইয়ের প্রস্তুতির জন্য ঘরোয়া ইভেন্টটি হবে ৫০ ওভারের প্রতিযোগিতা। টি২০ ভুলে মেয়েরা এখন ওয়ানডের সঙ্গে মানিয়ে নিচ্ছে। নিজেদের মধ্যে খেলছে ৫০ ওভারের প্রস্তুতি ম্যাচও, 'আমি মনে করি টি২০ আর ওডিআই শুধুমাত্র হতে পারে স্ট্র্যাটেজি ম্যাটার। এটা স্কিলের খুব বেশি পার্থক্য করে বলে মনে হয় না। কারণ ভালো বল ব্যাটসম্যান সমীহ করবে বাজে বল পানিশ করবে, সেটি টি২০ হোক আর ওডিআই হোক।'

'সর্বশেষ একমাসের যে ক্যাম্পটা হল সিলেটে, দীর্ঘ একটা সময় পরে ফিটনেস, স্কিলের যে অনুশীলন আমরা করেছি, সবমিলিয়ে প্রায় দশটা ৫০ ওভারের ম্যাচ খেলেছি। ভালোভাবেই প্রস্তুত হয়েছি বাংলাদেশ গেমস বলেন বা সামনের সিরিজ বলেন, আমরা রেডি টু পে, বলা চলে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে