বাফুফের সাধারণ সম্পাদক পদে সোহাগের নতুন চুক্তি

বাফুফের সাধারণ সম্পাদক পদে সোহাগের নতুন চুক্তি

বাংলাদেশের ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাফুফের সাধারণ সম্পাদক পদে আবু নাঈম সোহাগের সঙ্গে আরও দুই বছর চুক্তি বৃদ্ধি করেছে। গতকাল রোববার নির্বাহী কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সোহাগের সঙ্গে বাফুফের চুক্তি আরও দুই বছর নবায়নের ব্যাপারে সবাই সম্মত হওয়ার পাশাপাশি অনেকে প্রস্তাব করেছেন ডেপুটি জেনারেল সেক্রেটারি নিয়োগ দেওয়ার। ফেডারেশনের গঠনতন্ত্রেই রয়েছে এই বিধান। এতদিন বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়নি।

বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেন, 'সাধারণ সম্পাদকের চুক্তি আমরা আরও দুই বছর নবায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।'

২০০৫ সালে ম্যানেজার কম্পিটিশন্স (ক্লাব অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) হিসেবে বাফুফেতে যোগ দেন আবু নাইম সোহাগ। পাঁঁচ বছর এই পদেই ছিলেন। প্রথম পেশাদার সাধারণ সম্পাদক আল মুসাব্বির সাদী ২০১১ সালে মৃতু্যবরণের পর থেকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে পূর্ণাঙ্গ সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দুই বছরের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত হন। মাঝে আরও দুই দফা তার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বেড়েছে।

সোহাগের চুক্তি বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত গতকাল হলেও ফেডারেশন ও তার মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর এখনো হয়নি। চুক্তিপত্র সম্পর্কে সালাম মুর্শেদি বলেন, 'আমরা এখন থেকে যে কারও সঙ্গেই চুক্তি করি, খুব পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে প্রতিটি বিষয় উলেস্নখ করব। যাতে চুক্তিভঙ্গ বা অন্য কোনো ক্ষেত্রে ঝামেলা না হয়।'

ফুটবল ফেডারেশনে সাধারণ সম্পাদকই এখন সর্বোচ্চ প্রশাসনিক ব্যক্তি। অনেকদিন একই পদে থাকায় তার সুযোগ-সুবিধা বাড়ার কথা জানান সালাম মুর্শেদি।

দেশের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাফুফের আগে সাধারণ সম্পাদক নির্ভরই ছিল। ২০০৮ সালের পর থেকে সভাপতি-কেন্দ্রিক হওয়ায় বেতনভুক্ত পেশাদার সাধারণ সম্পাদকের প্রচলন তৈরি হয় ফিফা-এএফসি'র গাইডলাইন অনুযায়ী। সাবেক ক্রীড়া সাংবাদিক আল মুসাব্বির সাদী ছিলেন প্রথম পেশাদার সাধারণ সম্পাদক। তার মৃতু্যর পর আবু নাইম সোহাগ স্থলাভিষিক্ত হন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে