logo
মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি ২০২০, ৮ মাঘ ১৪২৭

  অনলাইন ডেস্ক    ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

অর্থাভাবে বীরাঙ্গনা রওশন আরার চিকিৎসা ব্যাহত

কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) সংবাদদাতা

বীরাঙ্গনা রওশন আরার খবর রাখে না কেউ! অর্থাভাবে ধুঁকে ধুঁকে মরতে বসেছেন তিনি। বয়সের ভারে নুয়ে পড়েছেন। বিভিন্ন রোগ তাঁর শরীরে বাসা বেঁধেছে। টাকার অভাবে ভালো কোনো ডাক্তার পর্যন্ত দেখাতে পারছেন না বীরাঙ্গনা রওশন আরা।

গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের পশ্চিম মাঝিগাতি গ্রামের মৃত মাঝেত মিয়া ছিলেন পেশায় ঘাটের মাঝি। তার বাড়ি ছিল নদীর ঘাটে। ১৯৭১ সালে পাক-আর্মি তার বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় মাঝেত মিয়ার বাড়িতে হানা দেয়। সে সময় এই বীরাঙ্গনা হারান তার সম্ভ্রম। মাঝেত মিয়ার মৃতু্যর পর স্ত্রী রওশন আরা বেগম ছেলে জালিম, আলিম এবং মেয়ে রহিমনকে নিয়ে কোনো রকমে দিন পার করেন। সন্তানরা হতদরিদ্র হওয়ার কারণে তিনি অর্থের অভাবে অবশেষে ভিক্ষাবৃত্তিতে নামেন।

কাশিয়ানী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজামুল আলম মোরাদ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল লতিফের সঙ্গে কথা বলে একটি ভবন ও ভাতা করে দেন। সেই ভাতার টাকা দিয়ে বিধবা মেয়ে রহিমনকে নিয়ে বেশ চলছিল। বর্তমানে তিনি বার্ধক্য এবং নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে বিছানায় পড়ে আছেন। টাকার অভাবে রোগের চিকিৎসা করাতে পারছেন না। মেয়ে রহিমন জানান, ভাতার টাকায় কোনো রকম সংসার চলে। চিকিৎসা করাতে অনেক টাকা দরকার, তা জোগাড় করতে না পারায় ভালো কোনো ডাক্তার দেখাতে পারছেন না। কারো কাছে কোনো ভালো সহযোগিতাও পাননি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে