রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এ সপ্তাহ ব্যাপী “বিজনেজ ফেস্টিভাল” এর উদ্ভোধন

যাযাদি ডেস্ক
  ২৮ এপ্রিল ২০২৪, ১৭:০২
নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এ সপ্তাহ ব্যাপী “বিজনেজ ফেস্টিভাল” এর উদ্ভোধন

ভিশন-২০৪১ এবং স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের প্রত্যয়ে নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের উদ্যোগে সপ্তাহ ব্যাপী “বিজনেস ফেস্টিভাল”এর আয়োজন করে। উক্ত বিজনেস ফেস্টিভাল-এর উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিল্প মন্ত্রী জনাব নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য জনাব খসরু চৌধুরী, নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ এবং তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মুহাম্মদ সামসুল আরেফিন।

প্রধান অতিথি জনাব নূরুল মজিদ মাহমুদ, এমপি ভিশন-২০৪১ এবং স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিজনেস কেইস এবং বিজনেস আইডিয়া প্রতিযোগিতা আয়োজনের জন্য নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান এবং বলেন, জাতি এখন স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছে। সকলের সম্মলিত প্রচেষ্টায় এই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা সম্ভব। তিনি শিক্ষার্থীদের তাদের অভিষ্ট লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যেতে আহ্বান জানান।

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশ একটি নতুন যুগের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে, যেখানে তরুণদের স্বপ্ন জাতির আকাঙ্খার সাথে মিশে আছে। গ্লোবালাইজেশনের এই সময়ে আমাদের এমন উদ্যোক্তা দরকার যারা চাকরি তৈরি করবে, সমস্যার সমাধান করবে এবং জাতিকে বিকশিত করার জন্য নিজেকে সংজ্ঞায়িত করবে। বিল গেটস, ইলন মাস্ক, মার্ক জুকারবার্গসহ অগণিত উদ্যোক্তাগণ তাদের নিজস্ব প্রচেষ্টায় বিশ্বে নিজেদের অবস্থান তৈরি করতে পেরেছে। উন্নয়নের শিখরে পৌঁছানোর জন্য অন্যদের অনুলিপি না করে নিজস্ব পথ তৈরি করতে হবে। আর যারা স্বপ্ন বাস্তবায়নে কঠোর পরিশ্রম করবে তারাই সাফল্য অর্জন করতে পারবে।

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য, বোর্ড অব ট্রাস্টের সম্মনিত সদস্যবৃন্দ, রেজিস্ট্রার বিভিন্ অনুষদের ডীন, বিভাগীয় প্রধানগণ, শিক্ষক-কর্মকর্তা ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

উল্লেখ্য, সপ্তাহব্যাপী “বিজনেস ফেস্টিভাল” অনুষ্ঠানে সারাদেশ থেকে ২০টি বিশ্ববিদ্যালয় বিজনেস কেইস এবং ৩৫টি বিজনেস আইডিয়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন।

যাযাদি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে