এই সিদ্ধান্ত ইতিবাচক

বই কিনতে ভ্যাট লাগবে না

বই কিনতে ভ্যাট লাগবে না

শিক্ষা একটি জাতির জন্য মেরুদন্ডস্বরূপ। সঙ্গত কারণেই শিক্ষার বিস্তারে যেমন প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি, তেমনিভাবে শিক্ষাকে সহজলভ্য করা এবং জ্ঞান অর্জনের পথ প্রশস্ত করতে বইয়ের সহজলভ্যতার বিষয়টিও গুরুত্বপূর্ণ। প্রসঙ্গত উলেস্নখ করা দরকার, সম্প্রতি পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত খবরে জানা গেল, বই কিনতে ভ্যাট লাগবে না। সব ধরনের বই বিক্রির ক্ষেত্রে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ছাড় দিয়েছে সরকার। অর্থাৎ ক্রেতা বই কিনলে ভ্যাট বাবদ বাড়তি অর্থ পরিশোধ করতে হবে না। জানা গেছে, মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত একটি বিশেষ আদেশ জারি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

আমরা মনে করি, এই বিষয়টি অত্যন্ত ইতিবাচক এবং এর সুষ্ঠু বাস্তবায়ন তাৎপর্যপূর্ণ। কেননা যারা বিভিন্ন ধরনের বই পড়েন এবং সুনিবিড় পাঠক তাদের জন্য যেমন এটি সহায়ক হবে, তেমনিভাবে শিক্ষার্থী, গবেষক থেকে শুরু করে সব ধরনের বই পিপাসুদের জন্য এটি স্বস্তির খবর। আদেশে বলা হয়েছে যে, বই শিক্ষাব্যবস্থার একটি মৌলিক উপকরণ এবং শিক্ষাব্যবস্থা ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। এ ছাড়া মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২-এর প্রথম তফসিলের দ্বিতীয় খন্ডের অনুচ্ছেদ-৩ এর উপ-অনুচ্ছেদ (খ) এ সংস্কৃতি সংশ্লিষ্ট সেবা হিসেবে পুস্তককে মূল্য সংযোজন কর থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে। এ ছাড়া বই ভাষা ও সাহিত্য, গবেষণা, স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্য সহায়ক হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে, যা শিক্ষার মানোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই জনস্বার্থে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২-এর ধারা ১২৬-এর উপ-ধারা (৩) এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে সব ধরনের বই বিক্রয়ের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য মূল্য সংযোজন কর থেকে অব্যাহতি প্রদান করল।

আমরা মনে করি, এই বিষয়টিকে সামনে রেখে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ ও সুষ্ঠু বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা এবং জ্ঞান অর্জনের পথ আরও সুগম হবে। মনে রাখা দরকার, যেহেতু বই শিক্ষাব্যবস্থার একটি মৌলিক উপকরণ এবং শিক্ষাব্যবস্থা ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। ফলে স্বাভাবিকভাবেই বইয়ের সহজলভ্যতা অর্থাৎ মূল্য সংযোজন কর থেকে অব্যাহতি পাওয়া গেলে বইয়ের প্রাপ্তিও সহজ হবে, দাম কমে যাবে, সঙ্গত কারণেই এই বিষয়টি অত্যন্ত তাৎপর্র্যপূর্ণ বলেই আমরা মনে করি। এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না, বইয়ের দাম কমে যাওয়ার অর্থ হলো এতে পাঠকের আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে- এমনটি মনে করা অসঙ্গত নয়। আর এটা স্বাভাবিকভাবেই প্রতীয়মান হয় যে, এই বিষয়টি বইপ্রেমীদের জন্য সুখবর। কেননা এখন থেকে সব ধরনের বই বিক্রির ক্ষেত্রে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ছাড় দিয়েছে সরকার এর অর্থ হলো এ জন্য ক্রেতারা বই কিনলে ভ্যাট বাবদ বাড়তি অর্থ পরিশোধ করতে হবে না। আমরা মনে করি, সংশ্লিষ্টদের এই সিদ্ধান্তে পাঠক বৃদ্ধির যেমন সম্ভাবনা আছে তেমনি শিক্ষার্থীরাও উপকৃত হবে।

সর্বোপরি আমরা বলতে চাই, এ কথা সত্য যে, দেশ শিক্ষার দিক থেকে নানাভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে এবং শিক্ষার বিস্তৃতি ঘটছে এমতাবস্থায় সব ধরনের বই বিক্রির ক্ষেত্রে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ছাড় দিয়েছে সরকার। অর্থাৎ ক্রেতা বই কিনলে ভ্যাট বাবদ বাড়তি অর্থ পরিশোধ করতে হবে না- এই বিষয়টি অত্যন্ত সুখকর পরিস্থিতিকেই সামনে আনলো। এতে বইপ্রেমীদের জন্য এক নতুন সময়ের সূচনা হলো যার ইতিবাচক প্রভাব পড়বে এমনটি আশা করা যায়। শিক্ষার অগ্রগতি, বইয়ের সহজলভ্যতাসহ সামগ্রিক বিষয়গুলোকে আমলে নিয়ে ইতিবাচক উদ্যোগ গ্রহণ অব্যাহত থাকুক এমনটি আমাদের প্রত্যাশা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে