শেখ হাসিনায় আস্থা ৮৫ ভাগ মানুষের

শেখ হাসিনায় আস্থা ৮৫ ভাগ মানুষের
শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনার ওপর দেশের ৮৫ ভাগ মানুষ সন্তুষ্ট বলে জানিয়েছেন বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান রিসার্চ ইন্টারন্যাশনাল (আরআই)। তৃতীয় মেয়াদের প্রথম বছরে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের নানা সফলতার-ব্যর্থতা থাকলেও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনার ওপর মানুষের আস্থা দিন দিন বাড়ছে বলে মনে করেন জরিপ প্রতিষ্ঠান।

রোববার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে 'আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের তৃতীয় মেয়াদের প্রথম এক বছরের কার্যক্রম' সম্পর্কে পরিচালিত জনমত জরিপের ফলাফল প্রকাশ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান আইআর নামে একটি বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান।

আরআই জানায়, দৈবচয়ন পদ্ধতিতে দেশব্যাপী ৮ হাজার ৩৯ জন মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর মধ্যে পরিচালিত টেলিফোন জরিপে ৫ হাজার ৪২৯ জন ফোন গ্রহণ করেন এবং তাদের মধ্যে ২ হাজার ২৬৬ জন অর্থাৎ শতকরা ৪১ দশমিক ৭ ভাগ অংশগ্রহণকারী তাদের মতামত প্রদান করেন। মতামত প্রদানকারীদের মধ্যে ৮০ ভাগ উত্তরদাতা জানায়, বর্তমান মেয়াদের প্রথম এক বছর আগের তুলনায় ভালো। জরিপে অংশ নেয়া শতকরা ৩ ভাগ উত্তরদাতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের ওপর অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে জানায় আরআই।

আরআই প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা

এবং অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী গবেষক অধ্যাপক আবুল হাসনাত মিল্টন বলেন, গত ৭ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া ভাষণে দেশবাসীকে তার ওপরে আস্থা রাখতে বলার প্রেক্ষিতে শতকরা ৮৬ ভাগ উত্তরদাতা জানান, তারা তার (প্রধানমন্ত্রী) ওপর আস্থা রাখেন, মাত্র ৩ ভাগ আস্থাহীনতার কথা জানান এবং ১১ ভাগ মতামত প্রকাশ করেননি।

সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সফলতার বিষয়ে পরিচালিত জরিপের ফলাফলে বলা হয়, সবচেয়ে কার্যকরী মন্ত্রণালয় হিসেবে শতকরা ৩০ ভাগ উত্তরদাতা শিক্ষা, ২৮ ভাগ উত্তরদাতা সড়ক পরিবহণ সেতু, ৯ ভাগ উত্তরদাতা তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি এবং বাকিরা অন্যান্য মন্ত্রণালয়কে বেছে নেন। দক্ষতা ও সাফল্যের প্রেক্ষিতে মন্ত্রীদের মধ্যে প্রথম ও দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন যথাক্রমে সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের (৩৬ ভাগ) এবং শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি (২৯ ভাগ)।

জরিপে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, বেকারত্ব বৃদ্ধি, পেঁয়াজ সংকট, আইনশৃঙ্খলা অবনতি, রোহিঙ্গা সমস্যা, সুশাসনের অভাব, সড়ক দুর্ঘটনা বৃদ্ধি, যানজট সংকট, পরীক্ষার অব্যবস্থাপনা, ধর্ষণ প্রতিরোধে ব্যর্থতা, যোগাযোগ ব্যবস্থা অবনতি, ভিন্নমত দমনে সরকারের ব্যর্থতার একটি চিত্র তুলে ধরেন। সেখানে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ছিল ব্যর্থতার শীর্ষে। ব্যর্থতার সবার নিচে ছিল ভিন্নমতে দমন।

জরিপে আরও জানানো হয়, জরিপে অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিদের মধ্যে শতকরা ৬৫ ভাগ উত্তরদাতা বর্তমানে বিএনপির রাজনৈতিক কর্মকান্ড নিয়ে কোনো আলোচনা করতেই চাননি এবং ২৫ ভাগ উত্তরদাতা বিএনপির কার্যক্রম নিয়ে অসন্তষ্ট, মাত্র ৬ ভাগ উত্তরদাতা বিএনপির কার্যক্রমে সন্তষ্ট। এর মধ্য দিয়ে জরিপ পরিচালনাকারী সংস্থাটির মনে হয়েছে, রাজনীতিতে বিএনপি গুরুত্ব হারাচ্ছে। জাতীয় পার্টির ব্যাপারেও উত্তরদাতাদের মধ্যে আগ্রহ কম পরিলক্ষিত হয়েছে বলেও জানানো হয়।

জরিপে অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিদের মধ্যে শতকরা ৪৮ ভাগ উত্তরদাতা দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেন, ৩২ ভাগ মনে করেন দরকার নেই এবং ২০ ভাগ মতামত প্রদান করেননি। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কর্মকান্ডে ৭২ শতাংশ মানুষ সন্তুষ্ট বলে জানান জরিপকারী প্রতিষ্ঠান।

শিক্ষামন্ত্রী কি কাজ করে সেরা হয়েছেন জানতে চাইলে জরিপের ফল প্রকাশকারীরা সাংবাদিকদের জানান, জরিপে এমন প্রশ্ন ছিল না। শুধু প্রশ্ন করা হয়েছিল, সরকারের কোন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রীর কাজ আপনার ভালো লেগেছে। এমন প্রশ্নের জবাবে উত্তর দাতারা যা বলেছেন তাই জরিপে উঠে এসেছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আরআইয়ের প্রধান সমন্বয়কারী কর্মকর্তা কাজী আহমদ পারভেজ ও সমন্বয়কারী কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে