জামালগঞ্জে ৫ গ্রামের মানুষের ভরসা বাঁশের সাঁকো

জামালগঞ্জে ৫ গ্রামের মানুষের ভরসা বাঁশের সাঁকো
জামালগঞ্জের পিয়াইন নদীতে বাঁশের সাঁকো দিয়ে এভাবেই ঝুঁকি নিয়ে পার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ -যাযাদি

'অপেক্ষায় কেটেছে ৫০ বছর। কেউ কথা রাখেনি। পিয়াইন নদে সেতু না হওয়ায় ৫ গ্রামের মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এলাকাবাসী বর্ষায় নৌকা আর শুষ্ক মৌসুমে বাঁশের সাঁকো দিয়ে এ নদ পারাপার হচ্ছেন। সেতু না হওয়ার কারণে এলাকার রাস্তাঘাটসহ অন্য কোনো উন্নয়ন হয়নি।' এভাবেই আক্ষেপ করে কথাগুলো বলেছেন ৬৫ বছরের নিশেন্দু কুমার রায়। সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার সাঁচনা বাজার ইউনিয়নের ভরতপুর গ্রামের বাসিন্দা তিনি।

পিয়াইন নদের পাড়েই তার বাড়ি। তার মতো হাজারও মানুষের দাবি ভরতপুর-কুকড়াপশি পিয়াইন নদে একটি পাকা সেতু নির্মাণ। সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পিয়াইন নদে খেয়া নৌকার পরিবর্তে একটি বাঁশের সাঁকো তৈরি করা হয়েছে। উঁচু-নিচু বয়স্ক মানুষ স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী ও রোগীদের দুর্ভোগের শেষ নেই। নিরুপায় হয়ে মানুষ ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত পারাপার হচ্ছেন এ সাঁকো।

নদের উত্তর পাড়ে ভরতপুর, চাঁনপুর, হরিহরপুর, আক্তাপাড়া, কলাচাঁনপুর গ্রামের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা গয়চাঁন বিশ্বাসসহ বেশ কয়েকজন বলেন, পিয়াইন নদীতে সেতু না থাকায় তাদের গ্রামে পাকা সড়কসহ কোনো উন্নয়ন হয়নি। নদীটি খরস্রোতা হওয়ায় খেয়া নৌকা পারাপারে সময় লাগে প্রায় ২০ মিনিট। ছেলেমেয়েদের স্কুল-কলেজে যাতায়াত ও ফসল পরিবহণসহ উপজেলা সদরে যেতে পিয়াইন নদী পার হয়ে যেতে হয়। ভরা বর্ষায় খেয়া নৌকাডুবি এবং শুকনোয় বাঁশের সাঁকো পার হতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় এলাকাবাসীকে।

খেয়া নৌকার মাঝি আমিন মিয়া বলেন, প্রায় ২৬ বছর ধরে নৌকা দিয়ে মানুষ পারাপার করছি। এ জন্য বছরে সবার কাছ থেকে নির্দিষ্ট টাকা এবং ধান নিয়ে থাকি। বর্ষা মৌসুমে খেয়া থাকলেও শুকনায় বাঁশের সাঁকো তৈরি করি। তবে এখানে একটি সেতু হলে এলাকার লোকজনের অনেক কষ্ট লাঘব হবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইকবাল আল আজাদ বলেন, 'দীর্ঘদিন ধরে তারা সেতুর প্রত্যাশা করে আসছে। আমরা বারবার প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছি এখানে একটি সেতু নির্মাণের। আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি। পিয়াইন নদীতে যেন একটি সেতু দ্রম্নত নির্মাণ করা হয়।'

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন বলেন, 'পিয়াইন নদীতে ব্রিজের ডিজাইনের কাজ চলছে। ডিজাইনের কাজ শেষ করে পাঠানো হলে টেন্ডার আহ্বান করা হবে। আশা করি কয়েক মাসের মধ্যেই টেন্ডার হয়ে যাবে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে