বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ত্রিদেশীয় সিরিজ ও টি২০ বিশ্বকাপ নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশে দেশ ছাড়ল টাইগাররা

ম ক্রীড়া প্রতিবেদক
  ০১ অক্টোবর ২০২২, ০০:০০
ত্রিদেশীয় টি২০ সিরিজ খেলতে গতকাল শুক্রবার রাতে নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। রাত ১১.৫৫ মিনিটে নিউজিল্যান্ডের বিমানে রওনা হন টাইগাররা। দেশটিতে গিয়ে বাংলাদেশ পৌঁছাবে ২ অক্টোবর সকালে। এরপর একদিন বিরতি দিয়ে ৪ তারিখ থেকে অনুশীলন শুরু করবেন টাইগাররা। ত্রিদেশীয় সিরিজে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড ছাড়া অপর দল পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি২০ বিশ্বকাপের আগে আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজকে টাইগারদের প্রস্তুতির সেরা পস্ন্যাটফর্ম হিসেবে দেখা হচ্ছে। নিউজিল্যান্ড থেকে সরাসরি অস্ট্রেলিয়ায় উড়ে যাবেন টাইগাররা। ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে নিউজিল্যান্ডে দলের সঙ্গে রোববার যোগ দেবেন ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়সের্র হয়ে খেলা বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। এদিকে মূল স্কোয়াডের সব খেলোয়াড়ই দলের বহরে রয়েছেন। অবশ্য জানা গেছে, স্ট্যান্ডবাই ক্রিকেটার শেখ মেহেদী হাসান এবং রিশাদ হোসেন যাননি দলের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডে। তবে পেসার শরিফুল ইসলাম এবং সৌম্য সরকার রয়েছেন এ বহরে। আইসিসির প্রটোকল অনুযায়ী গতকাল থেকেই শুরু হয়েছে বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ যাত্রা। এ জন্য তারা ২৩টি টিকিটও দিয়েছে। ত্রিদেশীয় সিরিজ ও বিশ্বকাপ মিলিয়ে প্রায় ৪০ দিন দেশের বাইরে অবস্থান করবে বাংলাদেশ দল। এ সফরে থাকছে অনেক চ্যালেঞ্জ। শেষ পর্যন্ত শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকাই এখন মূল লক্ষ্য। নিউজিল্যান্ডে দলের সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কোনো পরিচালক ও নির্বাচক থাকবেন না। তবে টি২০ বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ায় দলের সঙ্গে যোগ দেবেন ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস এবং প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। ডাবল লিগ ভিত্তিতে হওয়ায় নিউজিল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে অন্তত চারটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে বাংলাদেশ। দারুণ ফর্মে থাকা নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের মতো দলের বিপক্ষে ম্যাচ জয় কঠিন হলেও ফাইনাল খেলার আশা করছে বাংলাদেশ। সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ। তবে ওই দুই ম্যাচে বাংলাদেশের পারফরমেন্স আশানুরূপ ছিল না। তবে জয়ের ধারায় ফিরতে পেরে খুশি টিম ম্যানেজমেন্ট। সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে সিরিজের আগে নয় ম্যাচের মধ্যে মাত্র দু'টিতে জিতেছিল বাংলাদেশ। আগামী ৭ অক্টোবর পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে শুরু করবে বাংলাদেশ। এরপর ৯ অক্টোবর নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবেন টাইগাররা। ফিরতি লিগে বাংলাদেশের পরের দুই ম্যাচ যথাক্রমে ১২ ও ১৩ অক্টোবর। ত্রিদেশীয় সিরিজের সব ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ক্রাইস্টচার্চে। ১৪ অক্টোবর হবে ফাইনাল। এরপর অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবে বাংলাদেশ দল। সেখানে বিশ্বকাপের আগে ১৭ ও ১৯ অক্টোবর যথাক্রমে আফগানিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দু'টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবেন টাইগাররা। দু'টি অনুশীলন ম্যাচই হবে ব্রিসবেনের অ্যালান বোর্ডার মাঠে। ২৪ অক্টোবর হোবার্টে গ্রম্নপ 'এ'র রানার্স-আপদের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে বাংলাদেশ। ২৭ অক্টোবর সিডনিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবেন টাইগাররা। ৩০ অক্টোবর ব্রিসবেনের গাব্বাতে গ্রম্নপ 'বি' চ্যাম্পিয়নদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ২ নভেম্বর শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে এবং ৬ নভেম্বর পাকিস্তানে বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। দু'টি ম্যাচই হবে অ্যাডিলেডে।
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে