মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ''বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল কুয়াকাটা''

কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
  ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৪:২১

বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পকে বিশ্বের দরবারে ফুটিয়ে তুলতে,বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড এর আয়োজনে পর্যটন শিল্পে পরিবেশবান্ধব বিনিয়োগ’ প্রতিপাদ্য নিয়ে মুজিব’স বাংলাদেশ প্রচারণার অংশ হিসেবে পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় এই প্রথম শুরু হলো বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল কুয়াকাটা।

শুক্রবার (০৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় নান্দনিক ও গ্রামীন ঐতিহ্য ফুটিয়ে তুলে শুরু করা হয় র‍্যালী। যাতে অংশগ্রহণ করেন কুয়াকাটার সকল পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, প্রশাসনিক কর্মকর্তা সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ এই র‍্যালীতে অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় র‍্যালি ও পর্যটন বান্ধব সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে তারুণ্যের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,বানিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ। বেসামরিক বিমান পরিবহন ওপর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোকাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মুহাম্মাদ জাবের ও স্পেলবাউন্ড লিও বার্নেট এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ সাদেকুল আরেফিন। আলোচনা করেন বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশেনের চেয়ারম্যান মোঃ রাহাত আনোয়ার, পুলিশ সুপার পটুয়াখালী মোঃ সাইদুল ইসলাম, বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী শুভ্র দেব এবং অভিনেত্রী শামীমা তুষ্টি সহ আরো অনেকে।

কুয়াকাটা পৌর সভা থেকে শুরু হয়ে কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্টের মূল মেলা পয়েন্টে এসে শেষ হয় র‍্যালি। আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রধান অতিথি ফিতা কেটে এই অনুষ্ঠান শুভ উদ্ভোদন ঘোষণা করেন। এ সময় দেশাত্মবোধক গানে নৃত্য পরিবেশন করেন সাগরকন্যা মিডিয়ার সদস্যরা। উপস্থিত অতিথিরা মেলায় অংশ নেয়া সকল দোকান গুলো ঘুরে দেখেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বানিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেন, পর্যটনের মাধ্যমে সেবা বিক্রি করে পার্শ্ববর্তী দেশগুলো বছরে কোটি কোটি টাকা আয় করছেন কিন্তু আমরা পারছি না। আমাদের সেই যায়গা তৈরি করে সেবা বিক্রি করতে হবে। বাংলাদেশ পর্যটন খাতে একটি সম্ভাবনাময় দেশ। তাই এই শিল্পকে সারা বিশ্বের দরবারে ফুটিয়ে তুলতে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড সহ এই পেশায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

এ সময় বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মুহাম্মদ জাবের জানিয়েছেন, সম্ভাবনাময় পর্যটনশিল্পে উদ্যোক্তা হওয়ার অফুরন্ত সুযোগ রয়েছে। তুরুণদের ভেতরের শক্তিকে জাগাতে পারলেই আমাদের উন্নয়নের লক্ষ্যে পৌছুতে পারবো। গতানুগতিক কাজ না করে নতুন আইডিয়া নিয়ে নতুন কিছু উদ্ভাবন করে উদ্যোক্তা হতে তরুনদের উৎসাহিত করার জন্যই এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, জেলা প্রশাসন পটুয়াখালী, উপজেলা প্রশাসন কলাপাড়া, কুয়াকাটা পৌরসভা, ট্যুর অপারেটর,ট্যুর গাইড,হোটেল মালিক ও এমপ্লয়ার্স,কুয়াকাটা প্রেসক্লাব, ট্যুরিষ্ট পুলিশ সহ সবার সহযোগিতায় এ ফেস্টিভ্যাল আয়োজন করা হয়।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে