logo
সোমবার ১৪ অক্টোবর, ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ১০ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি তামিম-রিয়াদ

প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি তামিম-রিয়াদ
অনেক দিন ধরেই ক্রিকেটের বাইরে ছিলেন তামিম ইকবাল। জাতীয় ক্রিকেট লিগ সামনে রেখে ব্যাটিং অনুশীলনে ব্যস্ত এই বাঁহাতি ওপেনার -বিসিবি
অন্যবারের মতো এবার আর তারকাশূন্য জাতীয় ক্রিকেট লিগ দেখা যাবে না। দেশের ক্রিকেটের তারকারা নানা ব্যস্ততা আর অজুহাত দেখিয়ে জাতীয় লিগে না খেললেও এবার আর সেটি হচ্ছে না। তাই এবার লিগের শুরু থেকেই দেখা যাবে তামিম, মুশফিক, রিয়াদদের মতো তারকা ক্রিকেটারদের। তবে জাতীয় দলের তারকা প্রথম দুই রাউন্ড খেলার সুযোগ পাবেন। তারপরই শুরু হবে ভারত সফরের প্রস্তুতি ক্যাম্প।

আজ বৃহস্পতিবার থেকে আটটি বিভাগীয় দল নিয়ে দেশের চারটি ভেনু্য মিরপুর, ফতুলস্না, রাজশাহী ও খুলনায় অনুষ্ঠিত হবে এবারের মৌসুম। বরাবরের মতো সব ভেনু্যতে জাতীয় লিগের খেলা দর্শকরা দেখতে পারবেন বিনামূল্যে।

দেশের ক্রিকেটের মূল ভেনু্য মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম। কিন্তু আন্তর্জাতিক ঠাসা সূচির কারণে দীর্ঘদিন থেকেই এই মাঠে হয় না দেশের সবচেয়ে বড় প্রথম শ্রেণির আসর জাতীয় লিগের খেলা। এবার আন্তর্জাতি সূচিতে মিলেছে ফাঁকা সময় তাই চার বছর পর জাতীয় লিগের খেলা পাচ্ছে মিরপুর। মিরপুর ছাড়াও এবার খেলা হবে ফতুলস্নার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম, রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়াম ও খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে। মাঠে সংস্কার কাজ চলায় এবার ম্যাচ পাচ্ছে না সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। খেলা দেওয়া হয়নি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামেও।

যেসব ভেনু্যতে জাতীয় লিগের খেলা দেওয়া হয়, সেসব ভেনু্যর উইকেট নিয়ে প্রায়ই উঠে প্রশ্ন। তবে বিসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যে উইকেট হচ্ছে, অংশগ্রহণকারী দলগুলোর খেলোয়াড়রা সন্তুষ্ট হবে।

এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) প্রথমেই দেখা হয়ে যাচ্ছে জাতীয় দলের দুই শীর্ষ তারকা তামিম ইকবাল আর মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদের। মিরপুরের শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে ঢাকা মেট্রো আর চট্টগ্রাম বিভাগ। বলার অপেক্ষা রাখে না, বাঁহাতি উইলোবাজ মুমিনুল হকের নেতৃত্বাধীন চট্টগ্রামের শীর্ষ তারকা তামিম ইকবাল। আর ঢাকা মেট্রোর মূল স্তম্ভ মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদ। উদ্বোধনী দিনেই শেরেবাংলায় প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবেন তারা। ঢাকা মেট্রো দলে আছেন টেস্ট দলের ওপেনার সাদমান ইসলাম, আরাফাত সানি, আবু হায়দার রনি ও আমিনুল ইসলাম বিপস্নব সহ অন্যরা। চট্টগ্রাম দলেও দেখা যাবে জাতীয় দলের এক ঝাঁক তারকা খেলোয়াড়। আছেন তামিম ইকবাল, মুমিনুল হক। তরুণ ক্রিকেটারদের মধ্যে নাঈম হাসান, মেহেদী হাসান (অনূর্ধ্ব-১৯), মিনহাজুল আবেদীন আফ্রিদিও রয়েছেন।

এবারের আসরে প্রথম রাউন্ডে অপর তিন খেলায় মুখোমুখি হবে ঢাকা বিভাগ ও রাজশাহী বিভাগ। খেলা হবে নারায়ণগঞ্জের ফতুলস্নার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে। রাজশাহীর হয়ে এবার জাতীয় লিগে খেলবেন জাতীয় দলের উইকেট-রক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম, ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান ও তাইজুল ইসলাম। ঢাকা বিভাগের পক্ষে খেলবেন নাজমুল ইসলাম অপু, জুবায়ের হোসেন লিখন, শুভাগত হোম, রকিবুল হাসান, রনি তালুকদার, তরুণ ক্রিকেটার মোহাম্মদ সাইফ হাসানরা।

অন্যদিকে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে হবে রংপুর আর খুলনা বিভাগের খেলা। রংপুর বিভাগের হয়ে খেলবেন নাঈম ইসলাম, নাসির হোসেন, তানবীর হায়দার, শোহরাওয়ার্দী শুভ এবং খুলনা বিভাগের মূল শক্তি জাতীয় দলের ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, আল আমিন হোসেন। এছাড়া রয়েছেন অভিজ্ঞ তুষার ইমরান, আব্দুর রাজ্জাক।

অন্যদিকে রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে বরিশাল মুখোমুখি হবে সিলেট বিভাগের। বরিশালের পক্ষে খেলবেন কামরুল ইসলাম রাব্বি, মোসাদ্দেক হোসেনস সৈকত, শাহরিয়ার নাফিস, মোহাম্মদ আশরাফুল, সোহাগ গাজী, ফজলে রাব্বি এবং সিলেটের হয়ে খেলবেন অভিজ্ঞ অলক কাপালি, শাহনুর রহমান, এনামুল হক জুনিয়র, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহি, এবাদত হোসেনসহ অন্যরা।

১০ থেকে ১৩ অক্টোবরের পর ৩ দিন বিরতি দিয়ে শুরু হবে দ্বিতীয় রাউন্ড। ১৭ অক্টোবর থেকে যে দ্বিতীয় পর্ব শুরু, তাতে ঢাকার শেরেবাংলায় কোনো ম্যাচ নেই। ওই পর্বে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে খুলনা ও রাজশাহী।

আর রংপুর ও ঢাকা বিভাগের লড়াই হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের খেলা হবে ফতুলস্না খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে। বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে ঢাকা মেট্রো ও সিলেট বিভাগের প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

জাতীয় দলে লেগ স্পিনার সমৃদ্ধ করতে এবার জাতীয় লিগের আট দলের ছয়টিতে থাকছেন একজন করে লেগস্পিনার। বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এমনটা দেখা যায়নি কখনোই। স্বীকৃত লেগস্পিনারদের প্রায় সবাইকে জাতীয় লিগের মূল স্কোয়াডে জায়গা করে দিয়েছেন নির্বাচকরা। এবার টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে প্রত্যাশা মূল একাদশেও যেন সুযোগ করে দেওয়া হয় তাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে