ফ্রি ইন্টারনেটে হুমকির বিষয়ে গুগলপ্রধানের সতর্কতা

ফ্রি ইন্টারনেটে হুমকির বিষয়ে গুগলপ্রধানের সতর্কতা

বিশ্বজুড়ে ফ্রি ইন্টারনেটসেবায় সাইবার হামলার পরিমাণ বাড়ছে। তাই ইন্টারনেট ব্যবহারে এসব হুমকি ও হামলার বিষয়ে ব্যবহারকারীদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সুন্দর পিচাই। খবর বিবিসি।

তিনি বলেন, অনেক দেশ তথ্যের অবাধ আদান-প্রদানে বিধিনিষেধ আরোপ করছে এবং অন্যরাও এ পদ্ধতি অনুসরণ করছে।

এক সাক্ষাত্কারে পিচাই একই সঙ্গে কর দেয়া, ব্যক্তিগত তথ্য ও নিরাপত্তার বিষয়ও উপস্থাপন করেন। তিনি গতানুগতিক ধারার ইন্টারনেটসেবা, আগুন ও বিদ্যুতের তুলনায় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে বেশি কার্যকর বলে আখ্যা দেন।

সুন্দর পিচাইয়ের মতে, আগামী এক শতাব্দীতে প্রযুক্তিজগতের দুটি বড় পরিবর্তন বিশ্বে বিপ্লবের সৃষ্টি করবে। সেগুলো হচ্ছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও কোয়ান্টাম কম্পিউটিং। সিলিকন ভ্যালিতে অবস্থিত গুগলের প্রধান কার্যালয়ে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ভবিষ্যৎ ও বিস্তৃতি নিয়ে আলোচনা করেন।

তিনি বলেন, উদ্ভাবনের ইতিহাসে এ প্রযুক্তি মানবজাতির জন্য অত্যন্ত ফলপ্রসূ হয়ে উঠবে।

পিচাই বলে, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা হচ্ছে মেশিনের মধ্যে মানুষের জ্ঞান, বোধশক্তি, অনুভূতির প্রবেশ করানো। বর্তমানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন অনেক সিস্টেম মানুষের চেয়ে আরো দ্রুত সময়ে জটিল জটিল সমস্যার সমাধান করছে।

কোয়ান্টাম কম্পিউটারের বিষয়ে পিচাই বলেন, এটি সম্পূর্ণ ভিন্ন জিনিস। বর্তমান সময়ে যে ধরনের কম্পিউটিং করা হয় সেটি বাইনারি সংখ্যা শূন্য অথবা ১-এর ওপর নির্ভর করে। এর মাঝামাঝি কোনো অবস্থানে নয়। এ অবস্থানকে বিটস বলা হয়।

কিন্তু কোয়ান্টাম অথবা সাব অ্যাটমিক পর্যায়ে এটি ভিন্নভাবে কাজ করে। এখানে বাইনারি সংখ্যা একই সঙ্গে শূন্য অথবা ১-এর মধ্যে কিংবা তাদের মাঝামাঝি কোনো অবস্থায় থাকতে পারে।

কম্পিউটিং, ট্যাক্স ছাড়াও আরো একটি ক্ষেত্রে সমস্যার মুখে পড়ছে গুগল। সেটি হচ্ছে ব্যবহারকারীদের তথ্যের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা। যে কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ গুগলের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিচ্ছে এবং তদন্তের পরিমাণও বাড়ছে।

এসব বিষয়ে পিচাই নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছেন। তার মতে গুগল সবার জন্য উন্মুক্ত। তাই যে কেউ সহজেই যেকোনো জায়গায় যেতে পারেন।

পিচাইয়ের অধীনে গুগল বাজারে নিজেদের শীর্ষ অবস্থান আরো দৃঢ় করেছে। প্রযুক্তিসংশ্লিষ্টরা পিচাইয়ের অধীনে গুগলের শেয়ারের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে কোনো তর্কের সৃষ্টি করা সম্ভব নয় বলে জানান। তাদের শেয়ারের দাম তিন গুণ বেড়েছে।

প্রযুক্তিবিশ্বের অনেক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান গুগলের অগ্রগতিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। অন্যদিকে বিশ্বের অনেক দেশ এ টেক জায়ান্টের কার্যক্রমে শিথিলতা বা বাধা আসুক এমনটাও চান।

চীনে ইন্টারনেট ব্যবহারসহ বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের ওপর সরকারের কড়া নজরদারির বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে পিচাই বলেন, স্বাধীন ও উন্মুক্ত ইন্টারনেট ব্যবহারে হামলা করা হয়েছে। তবে তিনি সরাসরি চীনের কথা উল্লেখ করেননি। তিনি বলেন, আমাদের প্রধান প্রধান পণ্য বা সেবার কোনোটাই চীনে নেই।

করোনার কারণে বর্তমানে ইন্টারনেটের অনেক ব্যান্ডউইডথ চলে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে বিভিন্ন দেশে নীতিনির্ধারক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অক্ষম, যে কারণে পশ্চিমের গণতান্ত্রিক দেশগুলো উদ্ভূত পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের সিদ্ধান্ত গ্রহণে পিচাইয়ের মতো ব্যক্তিদের ওপরই নির্ভর করছেন। তবে সুন্দর পিচাই মনে করেন, সব দায়িত্ব তিনি একা পালন করতে পারবেন না।

যাযাদি/ এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে