বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

পাঁচ ম্যাচের বেশি খেলব না, এটা বলিনি : তামিম

যাযাদি ডেস্ক
  ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৮:০৭
পাঁচ ম্যাচের বেশি খেলব না, এটা বলিনি : তামিম

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল ঘোষণার পরও নাটকীয়তা শেষ হয়নি পুরোপুরি। ১৫ সদস্যের স্কোয়াডে রাখা হয়নি জাতীয় দলের ওপেনার তামিম ইকবালকে।

এর আগে ও পরে গুঞ্জন ছড়ায় বিশ্বকাপে মাত্র পাঁচটি ম্যাচ খেলতে চাওয়ায় তাকে নেওয়া হয়নি, পরে সেটিকে উড়িয়ে দেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। এখন একই দাবি করছেন তামিমও।

আজ নিজের ফেসবুক পেইজে এক ভিডিও বার্তায় পুরো বিষয়টি খোলাসা করেছেন তামিম। ভিডিওর শুরুতে এই অভিজ্ঞ বাঁহাতি ব্যাটার বলেন, ‘যে জিনিস ঘটেছে, সেটা আমি আপনাদের পুরো ধাপে ধাপে জানাতে চাই। কারণ আমার কাছে মনে হয়েছে এটা আমার ভক্ত বা ক্রিকেটপ্রেমীদের জানা থাকা দরকার। গত জুলাইয়ে আমি অবসর নিই, সেটার একটা কারণ ছিল। পরে প্রধানমন্ত্রীর চাওয়াতে ফিরে আসি। পরের দুই মাসে প্রচণ্ড কষ্ট করেছি। এরকম কোনো সেশন বা ব্যয়াম নাই উনারা চেয়েছে, আমি করিনি।

'খেলাটা যখন কাছাকাছি আসলো, আমি খুব বেশি খুশি ছিলাম না যা কিছু ঘটেছে শেষ চার-পাঁচ মাসে। যখন আমি খেলা শুরু করলাম ৩০-৩৫ ওভারের মতো ফিল্ডিং করলাম। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সুযোগ আসলো, কিন্তু আমি সম্ভাব্য সেরাটা করেছি। ওই মুহূর্তে দরকার ছিল কিছু রান করা ব্যাটিংটা কেমন হচ্ছে দেখা। ওই ম্যাচের পর আমি অনেক খুশি ছিলাম। শেষ চার পাঁচ ম্যাচে যা হয়েছে এগুলো মাথায় ছিল না। আমি বিশ্বকাপ খেলার দিকে তাকিয়ে ছিলাম, ’ যোগ করেন তিনি।

কিন্তু বিশ্বকাপ দল ঘোষণার পর দেখা গেল, তামিমের নাম নেই। তার না থাকা চমকই হয়ে এসেছে সবার কাছে। তাকে দলে না রাখার কারণ হিসেবে নির্বাচকরা জানিয়েছিলেন চোটের কথা। পিঠের চোটে অনেকদিন ধরেই মাঠের বাইরে ছিলেন তামিম। এশিয়া কাপেও খেলতে যাননি এ কারণেই। পরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে ফেরেন তামিম। প্রথম ওয়ানডেতে বৃষ্টির কারণে মাঠে নামতে না পারলেও দ্বিতীয়টিতে ৫৮ বলে ৪৪ রান করেন তিনি। ওইদিনই পিঠের চোটে নিজের অস্বস্তির কথা জানান তামিম, সেটি বলেন টিম ম্যানজেম্যান্টকেও। পরে আর তাকে স্কোয়াডে রাখেননি নির্বাচকরা।

তামিমের এই না থাকা নিয়ে নানা কথা ছড়ায় ক্রিকেটপাড়ায়। কেউ কেউ দাবি করতে থাকেন, তামিম নাকি নির্বাচকদের বলেছেন পাঁচ ম্যাচের বেশি খেলতে পারবেন না। এ প্রসঙ্গে আজ তামিম বলেন, ‘(নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচের) খেলা যখন শেষ হলো আমি আমার অবস্থা বললাম ফিজিওকে যে আমি এমন অনুভব করছি। ঠিক ওই মুহূর্তে তিনজন নির্বাচক ড্রেসিংরুমে আসে। একটা জিনিস আপনাদের একদম পরিষ্কার করে দিতে চাই। আমি কোনো সময়, কোনো মুহূর্তে, কাউকে বলিনি যে পাঁচটা ম্যাচের বেশি খেলতে পারবো না। '

তামিম আরও বলেন,‘আমি নিশ্চিত কালকে নান্নু ভাইও কথাটা ক্লিয়ার করছে। আমি জানি না এই কথাটা মিডিয়াকে খাওয়ানো হলো বা কে করছে, কিন্তু এই জিনিস একদমই মিথ্যা। যে জিনিস আমি নির্বাচকদের বলেছিলাম যে আমার শরীর এরকমই থাকবে। এখন যেরকম অবস্থায় আছে। আমার ব্যথা থাকবে। আপনারা যখন দলটা নির্বাচন করবেন, তখন এটা মাথায় রাখবেন। ’

এদিকে বিশ্বকাপ খেলতে আজ বুধবার বিকেলে ভারতের উদ্দেশে উড়াল দিয়েছে বাংলাদেশ দল। এখানে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে শুরু হবে বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিকতা।

যাযাদি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে