আগেই ব্যাগ গুছিয়ে রেখেছিলেন সাজ্জাদ!

আগেই ব্যাগ গুছিয়ে রেখেছিলেন সাজ্জাদ!

শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছেন স্ট্রাইকার নাবীব নেওয়াজ জীবন। তার জায়গায় সুযোগ পেয়েছেন মিডফিল্ডার সাজ্জাদ হোসেন। এবারের প্রিমিয়ার লিগে চার গোল ও একটি অ্যাসিস্ট করায় আলাদা একটা আত্মবিশ্বাস কাজ করছিল সাইফ স্পোর্টিংয়ের হয়ে খেলা এই ফুটবলারের। নিজের প্রতি ছিল অগাধ আত্মবিশ্বাসও। তাই আগে থেকে জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে যোগ দেওয়ার জন্য সাজ্জাদ ব্যাগও গুছিয়ে রেখেছিলেন! রোববার বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনাতে জাতীয় দলের অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমের কাছে সেই গল্পই শুনিয়েছেন চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে উঠে আসা এই ফুটবলার।

অথচ শুরুতে জাতীয় দলের প্রাথমিক ক্যাম্পেই ছিলেন না। শেষ পর্যন্ত জীবনের জায়গায় ডাক পেয়ে সাজ্জাদ বলেছেন, 'প্রাথমিক স্কোয়াড যেদিন ঘোষণা করবে, এর তিন-চার দিন আগে থেকেই আমি অপেক্ষায় ছিলাম। আমার একটা বিশ্বাস ছিল যে এবার আমি জাতীয় দলে ডাক পাব। প্রতিদিনই আশায় ছিলাম কখন দল ঘোষণা করবে। ১৪ তারিখ দুপুরের পর থেকেই খোঁজ নিচ্ছিলাম, বিকালে অনুশীলন শেষে এসে দেখি যে স্কোয়াড ঘোষণা করেছে, আমি নেই। কিন্তু মন বলেছিল, আমাকে একসময় ডাকবেই।'

শেষ পর্যন্ত ডাক পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে সাজ্জাদ আরও বলেছেন, 'দু-তিন দিন পর হঠাৎ দেখি ফেডারেশন থেকে কল দিয়েছে। আমাকে জিজ্ঞেস করেছে, প্রস্তুত আছি কিনা। শুরুতে স্কোয়াডে জায়গা না পেলেও ব্যাগটা সেভাবেই রেখে দিয়েছিলাম। এরপর তো ডাক পেলাম। লিগে চার গোল আর টুর্নামেন্টে দুই গোল করেছি। এটাই আমার আত্মবিশ্বাসের অন্যতম কারণ ছিল।'

সাজ্জাদ এখন জাতীয় দলের চূড়ান্ত স্কোয়াডে জায়গা করে নেওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। তার জন্য কঠিন পথ পাড়ি দিতেও প্রস্তুত এই মিডফিল্ডার, 'জাতীয় দলে এসে বেশ ভালো লাগছে। ক্লাব আর জাতীয় দলের মধ্যে অনেক পার্থক্য। এখানে অনুশীলনে বিশ্রামের, এমনকি পানি খাওয়ারও তেমন সময় পাওয়া যায় না। কিন্তু ক্লাবে আমরা বেশ সময় পাই। ওইটা হচ্ছে ক্লাব পর্যায় আর এটা নিজের দেশের জন্য। ক্লাবে লড়াই করলেও বিদেশি খেলবে আর এখানে লড়াই করতে হবে নিজের জায়গা দখলের জন্য। তাই অনুশীলনে নিজের সেরাটা করে যাচ্ছি।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে