সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্র নির্মাণে তারকাদের হিড়িক

সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্র নির্মাণে তারকাদের হিড়িক
সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া মীর সাব্বির পরিচালিত 'রাত জাগা ফুল' চলচ্চিত্রের দৃশ্যে

রুচিশীল ও শিল্পমানসমৃদ্ধ পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে অনেক আগে থেকেই পৃষ্ঠপোষকতা ও সহায়তা দিয়ে আসছে সরকার। প্রতি বছর ঘোষিত হয় অনুদানপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র প্রযোজকদের নাম। পাশাপাশি চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য আগের চেয়ে অনুদানের অর্থ বাড়িয়েও দেওয়া হয়েছে কয়েকগুণ। এক সময় অনুদানপ্রাপ্তদের তালিকায় খ্যাতিমান নির্মাতাদের নাম দেখা গেলেও বেশ কয়েক বছর ধরেই এই তালিকায় উঠে আসছে তারকাদের নাম। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনায় সম্পৃক্ত থাকলেও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতার প্রত্যাশায় প্রতি বছরই আবেদন করেন এসব তারকা। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনুদানের খাতায় প্রযোজক হিসেবে জায়গা করে নিচ্ছেন একাধিক তারকা। তবে চলচ্চিত্র নির্মাণে অর্থলগ্নির সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও অনুদানের বিষয়টি বাঁকা চোখে দেখেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের কেউ কেউ। প্রতিবারের মতো ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য চলচ্চিত্রে সরকারি অনুদানপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়। এবার পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগের তালিকায় রয়েছে ১৯ জনের নাম। এর মধ্যে রয়েছেন শোবিজের তিন তারকা শাকিব খান, অপু বিশ্বাস ও সম্পা রেজা। এর আগে প্রযোজক হিসেবে একাধিক চলচ্চিত্র নির্মাণ করে অলোচনায় এসেছেন ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান। তার প্রযোজিত চলচ্চিত্রগুলো মোটামুটি ব্যবসাও করেছে। তবে চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য এবারই প্রথম সরকারি অনুদানের খাতায় তার নাম ওঠেছে। 'মায়া' চলচ্চিত্রটির জন্য এই নায়ক পাবেন ৬৫ লাখ টাকা। শাকিব খানের চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করবেন হিমেল আশরাফ। প্রযোজক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। তার চলচ্চিত্রের নাম 'লাল শাড়ি'। পরিচালক বন্ধন বিশ্বাস। এটি নির্মাণের জন্য অপু অনুদান পাবেন ৬৫ লাখ টাকা। 'অন্তরখোলা' চলচ্চিত্রের জন্য প্রযোজক হিসেবে ৬০ লাখ টাকা অনুদান পাবেন অভিনেত্রী সারা যাকের। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করবেন রতন কুমার পাল। ২০২০-২১ অর্থবছরে 'রইদ' চলচ্চিত্রের জন্য অনুদান পেয়েছেন অভিনেত্রী জয়া আহসান। চলচ্চিত্রটির পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন। এর আগে ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে ৩৫ লাখ টাকা সরকারি অনুদান পেয়েছিল জয়ার 'বিউটি সার্কাস'। নানা ঝক্কিঝামেলার পর মাহমুদ দিদার পরিচালিত এই চলচ্চিত্রটি সম্প্রতি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির অনুমতি পেয়েছে। সার্কাসকে কেন্দ্র করে এক নারীর টিকে থাকার গল্পে নির্মিত হয়েছে 'বিউটি সার্কাস'। সার্কাস আক্রান্ত হওয়ার পরও গণমানুষের পক্ষ নিয়ে হুমকির মুখেও একজন নারীর আপন শক্তিতে টিকে থাকার গল্প ফুটে উঠবে এতে। ২০২০-২১ অর্থবছরে 'অসম্ভব' চলচ্চিত্রের জন্য অনুদান পেয়েছেন অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাস। তিনি নিজেই চলচ্চিত্রটি পরিচালনায় হাত দেন। অরুণা-জয়া চলচ্চিত্র নির্মাণে প্রতিজনে পেয়েছিলেন ৬০ লাখ টাকা। একই সময়ে 'জয় বাংলা' নামে চলচ্চিত্রের জন্য অনুদান পান প্রবীণ চিত্র পরিচালক ও অভিনেতা কাজী হায়াৎ। শুটিং শেষ করে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে চিত্রনায়িকা রোজিনা পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র 'ফিরে দেখা'। চলচ্চিত্রটির প্রযোজকও তিনি। এটি ২০২০ সালে সরকারি অনুদান পেয়েছে। সম্প্রতি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ব্যতিক্রমধর্মী চলচ্চিত্র 'রাত জাগা ফুল'। এটি মীর সাব্বির পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র। এর কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্যও তার। চলচ্চিত্রটি বানানোর জন্য মীর সাব্বির ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পেয়েছেন। একই বছরে অনুদানপ্রাপ্তদের তালিকায় স্থান পায় চলচ্চিত্রের মিষ্টি মেয়ে নামে খ্যাত অভিনেত্রী কবরীর 'এই তুমি সেই তুমি' ও লাকী ইনামের প্রযোজনায় '১৯৭১ সেইসব দিন'। লাইট-ক্যামেরা নিয়ে কবরী মাঠে নামলেও তার মৃতু্যতে থমকে যায় চলচ্চিত্রটির কাজ। অন্যদিকে শুটিং শেষ মুক্তির অপেক্ষায় '১৯৭১ সেইসব দিন'। এই চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন লাকী ইনামের মেয়ে হৃদি হক। ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে চলচ্চিত্রে অনুদানের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের বিশ দিন পর অভিনত্রী শমী কায়সারের একটি চলচ্চিত্রকে অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় অনুদান কমিটি। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৬০ লাখ টাকার সরকারি অনুদান পেয়েছেন গাজী রাকায়েতের 'গোর'। চলচ্চিত্রটি পরিচালনাও করেছেন রাকায়েত। চলচ্চিত্রটি ইতোমধ্যে দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সাড়া ফেলেছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে