ওয়াজ মাহফিলের সভাপতি যুদ্ধাপরাধী, এলাকায় ক্ষোভ

ওয়াজ মাহফিলের সভাপতি যুদ্ধাপরাধী, এলাকায় ক্ষোভ

ঝিনাইদহে যুদ্ধাপরাধীকে ওয়াজ মাহফিলের সভাপতি নির্বাচিত করায় স্থানীয় জনগণের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আগামী ২৭ নভেম্বর ঝিনাইদহ সদরের পবহাটি গ্রামে আয়োজিত ওয়াজ মাহফিল ও ইছালে ছওয়াবের সভাপতিত্ব করবেন তিনি। এ সংক্রান্ত লিফলেট এলাকায় বিতরণ করা হচ্ছে। করা হচ্ছে মাইকিং। স্বাধীনতা যুদ্ধে বিরোধীতাকারী আহম্মেদ বদু ঝিনাইদহ পৌরসভার পবহাটি এলাকার বাসিন্দা।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার সিদ্দিক আহম্মেদ বলেন, আমরা ১৬ ডিসেম্বরের পর দেশে আসার পর শুনেছি সে রাজাকার ছিল। আন্তর্জাতির অপরাধ ট্রাইবু্যনালে চলছে মামলা। বাংলাদেশে স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে অপহরণ, খুন, মানুষের বাড়িতে আগুন দেওয়া, হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের জমি জোরপুর্বক দখল করাসহ নানা অপরাধে অভিযুক্ত তিনি। এলাকাবাসীর আয়োজিত ওয়াজ মাহফিলের সভাপতিত্ব করবেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৬ সালের ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার স্বাক্ষরিত পাঠানো রাজাকার পিস কমিটি, আলসামস, আলবদরের তালিকায় বদর উদ্দিন আহম্মেদের নাম রয়েছে ৪১ নম্বরে। একজন যুদ্ধাপরাধীর ওয়াজ মাহফিলের সভাপতিত্ব করবেন এমন খবরে এলাকার মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

পবহাটি গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা বদিরুজ্জামান বলেন, রাজাকার বদু ওয়াজ মাহফিলের সভাপতিত্ব করছেন এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক। স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি বাংলাদেশে আজ থাকলেও বদুর মতো রাজাকার, আলবদর এখনো তাদের রাজত্ব কায়েম করে চলেছে।

এদিকে বদরউদ্দীন আহম্মেদ বদুর সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, 'আমার নাম রাজাকারের তালিকায় উঠেছিল কিন্তু বর্তমানে নেই। এটি গ্রাম্য ষড়যন্ত্রের কারণে হয়েছিল। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। এখন খোঁজখবর নিয়ে বিষয়টি দেখব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে